kalerkantho


রাজবাড়ীতে মাদরাসা সুপারের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



মাদক সেবন, অর্থ আত্মসাৎসহ নানা অভিযোগে রাজবাড়ীর সুলতানপুর ইউনিয়নের চরশ্যামনগর দাখিল মাদরাসার সুপারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল শনিবার ক্লাস বর্জন করে এ কর্মসূচি পালন করে তারা।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনেকেই অভিযোগ করে, মাদরাসা সুপার কামরুজ্জামান মাদকাসক্ত। তিনি নিয়মিত মাদরাসায় আসেন না। এলেও হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে চলে যান। ক্লাসও নেন না। শিক্ষার্থীরা জানায়, মাদরাসার ভাবমূর্তি রক্ষায় সুপারকে বহিষ্কার করতে হবে।

মাদরাসার সহকারী শিক্ষক কামরুল ইসলাম, জালাল উদ্দিন, আব্দুল করিম, আলমগীর হোসেন জানান, মাদরাসার তৎকালীন কর্তৃপক্ষ দুই দফা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে অনভিজ্ঞ কামরুজ্জামানকে সুপার হিসেবে নিয়োগ দেয়। দেড় লাখ টাকা আত্মসাৎ করাসহ নানা অভিযোগে ২০১৫ সালে ম্যানেজিং কমিটির তৎকালীন সভাপতি তাঁকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছিলেন। শিক্ষকদের অভিযোগ, ধার নেওয়া থেকে শুরু করে নানা অজুহাতে কামরুজ্জামান অনেকের কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

রাজবাড়ী জেলা শহরের পশ্চিম ভবানীপুরে অবস্থিত জাগরণ মাদক নিরাময় কেন্দ্রে গিয়ে জানা যায়, কামরুজ্জামান সেখানে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। নিরাময় কেন্দ্রের পরিচালক রেজাউল করিম টিবলু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মিয়া বলেন, ‘একজন মাদরাসা সুপারের এমন অধঃপতন হওয়া উচিত নয়।’ এ বিষয়ে কথা বলতে কামরুজ্জামানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হয়। কিন্তু ফোনটি বন্ধ ছিল।

সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পারমিস সুলতানা জানান, ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



মন্তব্য