kalerkantho


ভুল ধরিয়ে দিলে শুধরে নেওয়া হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, তাঁর দল আওয়ামী লীগ অনিচ্ছাকৃত ভুল করে থাকলে সেগুলো শুধরে নেওয়া হবে। অনিচ্ছাকৃত কোনো ভুল সরকারের হয়ে থাকলে সেটি ধরিয়ে দেওয়া ও গুজবে কান না দিয়ে সত্য-মিথ্যা যাচাই করার আহ্বানও জানান তিনি।

গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদের ত্রিবার্ষিক জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘আমরা কাউকে বিনা অপরাধে গ্রেপ্তার করি না। গ্রেপ্তার যাঁরা হচ্ছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ, তার সব অভিযোগের প্রমাণ আমাদের কাছে আছে। তাঁরা যদি কোনোটি নিয়ে চ্যালেঞ্জ করেন তাহলে আমরা পরিষ্কার করে বলতে পারব কী অভিযোগে তাঁকে ধরা হয়েছে। তিনি কী করেছিলেন। কেন তাঁকে ধরা হয়েছে, তার ভিডিও ফুটেজ রয়েছে। আমাদের প্রচুর সাক্ষ্যপ্রমাণ রয়েছে। আমরা যাদের ধরছি, তাঁরা নানা অভিযোগে অভিযুক্ত। আমরা কোনো নিরীহ লোককে ধরছি না।’

রাজধানীতে বাসচাপায় নিহত হওয়ার পর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রসঙ্গ টেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের আমরা বললাম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন তোমাদের সব দাবি মানা হবে। সবাইকে বললাম আন্দোলন করতে হবে না, তোমরা ঘরে ফিরে আসো। তার পরও আমরা দেখলাম, বিভিন্নভাবে যারা নাকি বিভিন্ন আন্দোলনের মাধ্যমে ব্যর্থ হচ্ছিল, তারা বিভিন্নভাবে এদের সামনে নিয়ে আসছিল। তারপর সবাই বুঝতে পেরেছিল যে এগুলো সবই মিথ্যাচার। একজন অভিনেত্রী কিভাবে অভিনয় করে বলেছিল যে চারজনকে মেরে ফেলা হয়েছে। আমরা তাকে সামনে এনে সে কেন সেটা করেছে, সেটাও আমরা বলে দিতে পেরেছি।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরাও ভুল করতে পারি, আমরা অনিচ্ছাকৃত অনেক কিছু করতে পারি। আপনারা যদি ভুল ধরিয়ে দেন, অবশ্যই আমরা সংশোধিত হব।’ 

চাঁদাবাজির এক মামলায় বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরীর গ্রেপ্তারের প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে পুলিশের তদন্ত হচ্ছে। তদন্ত শেষ হওয়ার আগে আমার দ্বারা কিছু বলা সম্ভব নয়। তদন্তের পরেই আমি বলব, কী হয়েছিল, কেন হয়েছিল।’

গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদের ত্রিবার্ষিক জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। সভাপতিত্ব করেন নির্মল কুমার চ্যাটার্জি।

 

 



মন্তব্য