kalerkantho


বেসরকারি খাতে যাচ্ছে গাড়ির লাইসেন্স ও ফিটনেস সেবা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দুর্নীতি-অনিয়মের ব্যাপক অভিযোগ ও অক্ষমতার কারণে গাড়ির উপযুক্ততার সনদ ও চালকের লাইসেন্স দেওয়ার বিষয়টি বিআরটিএ থেকে বেসরকারি খাতে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে এই সেবা দেওয়া হতে পারে।

সেবা কার্যক্রম বেসরকারি খাতে দেওয়ার জন্য নীতিমালা করতে ১৪ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৩ সেপ্টেম্বর এই কমিটি গঠন করেছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) আবদুল হামিদকে। কমিটিতে পুলিশ সদর দপ্তর, ডিআইজি মহাসড়ক পুুলিশ, ঢাকার জেলা প্রশাসন, বিআরটিসি, বুয়েটের এআরআই, ব্র্যাক, নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা), পরিবহন মালিক সমিতি, পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের একজন করে ও বিআরটিএর তিনজন প্রতিনিধি রাখা হয়েছে। সদস্যসচিব করা হয়েছে বিআরটিএর পরিচালককে (ইঞ্জিনিয়ারিং)।

কমিটি আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নীতিমালা প্রণয়ন করবে। গত রাতে জানতে চাইলে কমিটির আহ্বায়ক কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘দায়িত্ব পেয়েছি মাত্র এক দিন হলো। এখন বিস্তারিত বলতে পারব না।’

বিআরটিএর ড্রাইভিং লাইসেন্স ও ফিটনেস সনদ পেতে বড় বাধা সীমাহীন দুর্নীতি ও সংস্থাটির অক্ষমতা। এ বিষয়ে বিআরটিএর সাবেক চেয়ারম্যান আইয়ুবুর রহমান খান কালের কণ্ঠকে জানান, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এ সেবা দেওয়ার দরকার রয়েছে। ৬৪ জেলায় এই সেবা দেওয়ার মতো প্রয়োজনীয় জনবল বিআরটিএর নেই।

জানা গেছে, গত বছর ১০ লাখ গাড়ির ফিটনেস নবায়ন করা হয়। ঢাকায় এই সেবা দেওয়া হয়েছে ছয় লাখের বেশি গাড়িতে। তার পরও ফিটনেসের চাপ বাড়ছে। এই চাপ কমাতে বিকেন্দ্রীকরণ জরুরি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

 



মন্তব্য