kalerkantho


খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির দুই দিনের কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। এই কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আগামী শনিবার ঢাকাসহ সারা দেশে মহানগর ও জেলায় এক ঘণ্টা মানবন্ধন। এরপর ১২ সেপ্টেম্বর দুই ঘণ্টার প্রতীকী অনশন।

কর্মসূচি অনুযায়ী, রাজধানীতে মানববন্ধন হবে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টায়। একই স্থানে প্রতীকী অনশন হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা।

গতকাল বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

রিজভী বলেন, আজকে দেশের সর্বত্র কোটি কোটি মানুষ আওয়াজ তুলেছে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি। তাঁর মুক্তিই হচ্ছে জনগণের একমাত্র আকাঙ্খা।

কর্মসূচি ঘোষণা করেন রিজভী বলেন, ‘আমরা প্রতীকী অনশনের জন্য রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন অথবা গুলিস্তানের মহানগর নাট্য মঞ্চের জন্য আবেদন করেছি।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘নজিরিবিহীন ও বেআইনিভাবে মামলার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কারাগারে আদালত বসিয়ে সরকার হানাদারি আক্রোশের সর্বশেষ খেলায় মেতে উঠেছে। আওয়ামী লীগ প্রধান ও অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনের ক্রোধ মিটাতে একবারেই দিশাহারা। তাই খালেদা জিয়াকে মিথ্যা সাজানো মামলায় জড়িয়ে দিয়ে নিম্ন আদালতকে ব্যবহার করে

সাজা দিয়েও মনের ঝাল মিটছে না। নিম্ন আদালতকে ব্যবহার করে আবারও গোপন বিচারপ্রক্রিয়ায় তাঁকে হয়রানি করতে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।’

ঢাকা মহানগর, নারায়ণগঞ্জ, কুষ্টিয়া, নেত্রকোনা, নাটোর, বরিশাল, নরসিংদী, বগুড়া, ঝিনাইদহ, সিরাজগঞ্জ, খুলনাসহ সারা দেশে দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করার চিত্র তুলে ধরেন রিজভী। তিনি বলেন, সারা দেশে চলছে মামলার ছড়াছড়ি, গ্রেপ্তার ও আসামি করার হিড়িক। গত পাঁচ-ছয় দিন থেকে শুরু হওয়া গ্রেপ্তার এখন ৫০০-এর কাছাকাছি। সরকার অজানা আশঙ্কায় বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করে কারাগার ভরে ফেলেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতা আবদুস সালাম, এমরান সালেহ প্রিন্স, আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, এ বি এম মোশাররফ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 



মন্তব্য