kalerkantho


মেয়র জাহাঙ্গীরের অভিষেক অনুষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমের অভিষেক উপলক্ষে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান হয়েছে ঐতিহাসিক ভাওয়াল রাজবাড়ী মাঠে। গতকাল মঙ্গলবার সেখানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী, এমপি, রাজনৈতিক নেতাদের পাশাপাশি ৩০ হাজারের অধিক নগরবাসী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

নতুন মেয়রের আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে গতকাল ভাওয়াল রাজবাড়ী মাঠ সেজেছিল ভিন্ন আবহে। গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন, প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, এমপি জাহিদ আহসান রাসেল,  স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, ঢাকা উত্তরের প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা, গাজীপুরের পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমতউল্লা খান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম রাহাতুল ইসলাম। 

অনুষ্ঠানে ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, দেশের ১৩টি সিটির মধ্যে আয়তনে গাজীপুর সবচেয়ে বড়। গত অর্থবছর এ সিটির উন্নয়নে অর্থ বরাদ্দ হয়েছিল ১৭ কোটি টাকা। আর মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের জন্য এ বছর বরাদ্দ তিন গুণ বৃদ্ধি করে ৫১ কোটি টাকা দেওয়া হবে। মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ দিয়ে সিটির উন্নয়ন সম্ভব নয়। সে ক্ষেত্রে শিল্প-প্রতিষ্ঠানের ট্যাক্স দিয়ে সিটির উন্নয়ন করতে হবে।

মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘নগরীর সবার জন্য কাজ করতে চাই। কে ভোট দিয়েছেন, কে দেননি তা নিয়ে ভাবতে চাই না।’ নগর উন্নয়নে পরিকল্পনার সিডি প্রদর্শন করে তিনি সবার পরামর্শ ও সহযোগিতা কামনা করেন। নাগরিকদের কেউ হয়রানির শিকার হলে মেয়রকে মোবাইল ফোনে মেসেজ পাঠাতে বলেন তিনি।



মন্তব্য