kalerkantho


আন্তর্জাতিক আন্ত বিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব শেষ

ঢাবি চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শেষ হলো দশম আন্তর্জাতিক আন্ত বিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব। ‘টেক ইয়োর ক্যামেরা, ফ্রেম ইয়োর ড্রিম’ স্লোগানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ এই উৎসবের আয়োজন করে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উৎসবটি শেষ হয়। জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর উৎসবে সহযোগিতা করে। উৎসবে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। এ ছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ইউএনএইচসিআরের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক পাপা কিসমা সিলা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, চলচ্চিত্রকার মোরশেদুল ইসলাম, শামীম আখতার, চলচ্চিত্র গবেষক জোনায়েদ হালিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উৎসবের শেষ দিনের আয়োজনে তিনটি সেশনে মোট ৩৩টি চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে।

আসরের সেরা চলচ্চিত্র ‘জহির রায়হান বেস্ট শর্ট’ নির্বাচিত হয়েছে রোমানিয়ান পরিচালক এলেনা সায়ালাকিউ নির্মিত চলচ্চিত্র ‘দ্য লিটল হিরো’। ‘তারেক মাসুদ বেস্ট ইমার্জিং ডিরেক্টর’ পুরস্কার জিতেছে বাংলাদেশি নির্মাতা নীলা নুসরাতের ‘মাগনা’ চলচ্চিত্রটি। ‘বেস্ট শর্ট ফিল্ম অন রিফিউজি’ নির্বাচিত হয়েছে সার্বিয়ান পরিচালক আলেকজান্ডার আলেকজিকের চলচ্চিত্র ‘এনিহোয়ার’। একই ক্যাটাগরিতে রানার-আপ হয়েছে বাংলাদেশি নির্মাতা মৃত্তিকা কামালের ‘এস্কেপ’। 

এ ছাড়া ‘বেস্ট ডিরেকশন’ পুরস্কার জিতেছে যুক্তরাষ্ট্রের ‘কানেক্টেড’ চলচ্চিত্রটি। ‘বেস্ট সিনেমাটোগ্রাফি’ পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ‘দ্য মোন’। যৌথভাবে ‘বেস্ট এডিটিং’ পুরস্কার পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের চলচ্চিত্র ‘কানেক্টেড’ ও ‘ম্যারিপোসাস’। বাংলাদেশি চলচ্চিত্র ‘ইজ ইট গুড টু রান অ্যাওয়ে?’ পেয়েছে ‘বেস্ট স্ক্রিনপ্লে’ পুরস্কার। জার্মান চলচ্চিত্র ‘ড্রাউনিং’ জিতেছে ‘বেস্ট এনিমেশন’ বিভাগের পুরস্কার। 

তারানা হালিম বলেন, ‘আমাদের দেশের চলচ্চিত্র নির্মাতারা নানা চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হন। সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে একজন চলচ্চিত্র নির্মাতাকে প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দিয়ে সহায়তা করা।’ ১০ বছর ধরে নিয়মিতভাবে আন্তর্জাতিক মানের এই আয়োজন করার জন্য তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদকে ধন্যবাদ জানান।

 



মন্তব্য