kalerkantho


জন্মাষ্টমীতে রাষ্ট্রপতি

ধর্মের অপব্যবহার সামাজিকভাবে রুখে দিন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ধর্মের অপব্যবহার সামাজিকভাবে রুখে দিন

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গতকাল বঙ্গভবনে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। ছবি : পিআইডি

ধর্মকে ব্যবহার করে কেউ সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা করলে তাকে সামাজিকভাবে প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গতকাল রবিবার বঙ্গভবনে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এ আহ্বান জানান।

আবদুল হামিদ বলেন, ‘ধর্ম মানুষকে সত্য ও ন্যায়ের পথ দেখায়। মানবকল্যাণে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে। কোনো ধর্মই জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ বা সন্ত্রাসবাদ সমর্থন করে না। তাই ধর্মকে ব্যবহার করে কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী যাতে সামাজিক শৃঙ্খলায় বিঘ্ন ঘটাতে না পারে সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে এবং কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা করলে তা সামাজিকভাবেই প্রতিহত করতে হবে।’

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণে অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে কাজে লাগানোর প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের ঐতিহ্য উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুখী ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণে সমাজে বিদ্যমান সম্প্রীতি ও বন্ধুত্ব আরো জোরদারে সব ধর্মবিশ্বাসের লোকের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় অভ্যর্থনায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। আরো উপস্থিত ছিলেন হিন্দু ধর্মাবলম্বী ব্যক্তিরা, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ পূজা উদ্‌যাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা, বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যক্তিরা। এ সময় তাঁরা রাষ্ট্রপতিকে জন্মাষ্টমীর ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। সূত্র : বাসস।

 



মন্তব্য