kalerkantho


জেএসডির গোলটেবিল আলোচনা

‘অনেক স্বৈরাচার দেখেছি, টিকেছে ১০ বছর’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



যুক্তফ্রন্টের একটি শরিক দলের গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা বলেছেন, তাঁরা অনেক স্বৈরাচারী সরকার দেখেছেন, যারা ১০ বছরের বেশি ক্ষমতায় থাকতে পারেনি। বর্তমান সরকারকে স্বৈরাচারী আখ্যায়িত করে তাঁরা বলেছেন, এই সরকারের ১০ বছর হয়ে গেছে। এবার তাদের বিদায় নিতে হবে।

গতকাল শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) আয়োজিত ‘গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার : পরিপ্রেক্ষিত ও করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা এসব কথা বলেন। আলোচনায় বক্তব্য দেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি ও যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন, জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।

সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘অনেক স্বৈরাচার দেখেছি, অনেক সহ্য করেছি। আর না, ১০ বছর হয়েছে, এবার চলে যান।’ তিনি বলেন, ‘কত বড় স্বৈরাচার ছিলেন পাকিস্তান আমলে আইয়ুব খান। ১০ বছরের বেশি টিকে নাই। আমাদের দ্বিতীয় স্বৈরাচার হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, তাঁরও ক্ষমতা ১০ বছর টিকেছে। বর্তমানে স্বেচ্ছাচারী সরকার আছে, তাদেরও কিন্তু ১০ বছর। এটা খুব সিগনিফিকেন্ট, ইতিহাস বলে, অনেক সহ্য করেছি, ১০ বছর হয়েছে এবার চলে যান। অনেক স্বেচ্ছাচার দেখেছি, আর দেখতে চাই না।’

ড. কামাল হোসেন বলেছেন, “আমরা বড় বড় স্বৈরাচারী সরকার দেখেছি, তাদের যে কী পরিণতি হয়েছে, আপনারা সবাই জানেন। আমরা অনেককেই দেখেছি বলতে, ‘আমি থাকব’, ‘আছি’, ‘চিরস্থায়ী হয়ে যাব’। দেখেছি তারা কিভাবে এগুলোকে বাস্তবায়িত করার জন্য রাষ্ট্রের অর্থ অপচয় করেছেন। বিভিন্ন ধরনের দল গঠন করেছেন, তাঁদের পরিণতি কী হয়েছে তাও দেখেছি।” তিনি মনে করেন, জনগণ যদি ভোট দেওয়ার সুযোগ পায়, তাহলে সরকারকে স্মরণীয় শিক্ষা দিয়ে ছাড়বে।

ড. কামাল মনে করেন, কেউ যদি অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন না চায়, তার জায়গা হবে পাবনায়।

 



মন্তব্য