kalerkantho


স্ত্রী হত্যায় অভিযুক্ত পুলিশকে গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



টাঙ্গাইল কালিহাতী থানার এএসআই হামিদুল ইসলামকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে কিশোরগঞ্জ চরশোলাকিয়ায়। এলাকাটির মুর্শিদ মিয়ার মেয়ে আয়েশা আক্তার জেবিনকে (৩২) যৌতুক দাবিতে নির্যাতনে গত ২০ আগস্ট হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে হামিদুলের বিরুদ্ধে। এসংক্রান্ত মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেছে এলাকাবাসী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হামিদুল ইসলামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছার বিনোদবাড়ি মালকোন গ্রামে। প্রায় চার বছর আগে আয়েশা আক্তার জেবিনের স্বামী কাজী সুমন ক্যান্সারে মারা যান। তখন কিশোরগঞ্জে কর্মরত হামিদুল দুই সন্তানসহ জেবিনকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। দীর্ঘ আলোচনার পর গত ৭ মে হামিদুল বিয়ে করেন জেবিনকে। এরপর জানা যায় ২০১৭ সালের ৪ জুলাই হামিদুল প্রথম স্ত্রী সাবিকুন্নাহারকে তালাক দিলেও সম্পর্ক রক্ষা করে চলেছেন। এ নিয়ে পারিবারিক বিরোধ তৈরি হয়।

জেবিনের বাবা মুর্শেদ মিয়া অভিযোগ করেন, বিয়ের সময় হামিদুলকে নগদ ৮০ হাজার টাকা ও দেড় ভরি স্বর্ণালংকার দেওয়া হয়। আরো দুই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে জেবিনকে প্রায়ই মারধর করা হতো। বিয়ের মাত্র তিন মাস ১৩ দিনের ব্যবধানে গত ২০ আগস্ট জেবিনকে হত্যা করা হয়। এ বিষয়ে কালিহাতী থানায় মামলা হলে পুলিশ হামিদুলকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে। এ অবস্থায় মামলার তদন্ত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) ওপর ন্যস্ত করার দাবি জানান তিনি।



মন্তব্য