kalerkantho


পৌর কাউন্সিলরকে কুপিয়ে জখম

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর সাজু সরদারকে (৩২) কুপিয়ে জখম করেছে স্থানীয় যুবলীগ নেতাকর্মীরা। অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে গত বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে একটি পান দোকানের সামনে কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত সাজু সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড (মীরগঞ্জ-থানাপাড়া) কাউন্সিলর এবং উপজেলা সদরের থানাপাড়ার মৃত কামাল উদ্দিনের ছেলে।

আহত সাজুর পরিবার ও পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে সাজুকে ফোন করে তাঁর থানাপাড়ার বাসা থেকে ডেকে নেওয়া হয়। উপজেলার চাচিয়া মীরগঞ্জ আদর্শ স্কুল মোড়ে আবুল হোসেনের পানের দোকানের সামনে একদল যুবলীগ নেতাকর্মী সাজুকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। এ সময় সাজু প্রাণ বাঁচাতে আবুল হোসেনের পানের দোকানে ঢুকে অচেতন হয়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সাজুর ঘনিষ্ঠজনরা জানায়, ছয় মাস আগে সাবেক যুবলীগ নেতা আজম মিয়া ও শ্যামল চন্দ্রের লোকজনের সঙ্গে সাজু ও তাঁর সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। ওই ঘটনার জেরেই সাজুকে কোপানো হয়েছে। তবে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আলম রেজার দাবি, এ ঘটনার সঙ্গে দলীয় কোনো বিষয় জড়িত নয়।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি মো. আব্দুস সোবহান জানান, এ ঘটনায় সাজুর চাচা জামাল উদ্দিন বাদী হয়ে ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো ছয়-সাতজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। পুলিশ সুন্দরগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আহসানুল করিম চাঁদকে গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদেরও গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।



মন্তব্য