kalerkantho


জন্মাষ্টমী উপলক্ষে চট্টগ্রামে কাল মহাশোভাযাত্রা

বিস্তারিত কর্মসূচি ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি জন্মাষ্টমী আগামীকাল রবিবার। এ উপলক্ষে চট্টগ্রাম নগরের জেএম সেন হল থেকে বের হবে মহাশোভাযাত্রা। সকাল ১০টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করবেন সহকারী ভারতীয় হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংগঠন আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান জন্মাষ্টমী উদ্‌যাপন পরিষদ বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে। এ সময় সরকারের কাছে বাস্তবায়নের জন্য ১১ দফা দাবি উপস্থাপন করা হয়।

দাবিগুলো হলো ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার মূলমন্ত্র অনুযায়ী সনাতন ধর্মের লোকজনের নিরাপত্তা ও সম-অধিকার দান ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় গঠন; হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সন্ত্রাস সৃষ্টিকারীদের মানবতাবিরোধী হিসেবে চিহ্নিত করে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে শাস্তি; বেদখল হওয়া মঠ, মন্দির ও দেবোত্তর সম্পত্তি উদ্ধার-সংরক্ষণে প্রয়োজনে আইন প্রণয়ন; দুর্গাপূজায় চার দিনের সরকারি ছুটি ঘোষণা; হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টকে ফাউন্ডেশনে পরিণত করা; হামলায় বিধ্বস্ত মঠ, মন্দির ও সরকারি উদ্যোগে রামুর বৌদ্ধ বিহারের মতো সেনাবাহিনী দ্বারা পুনর্নির্মাণ; অর্পিত সম্পত্তি মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য প্রতি জেলায় বিশেষ আদালত গঠন; এরশাদ সরকারের আমলে সৃষ্ট বাংলা নববর্ষের তারিখ বিভ্রাটের অবসান; প্রতি জেলায় শ্রীকৃষ্ণ মন্দির প্রতিষ্ঠায় সরকারি জায়গা বরাদ্দ এবং জন্মাষ্টমী উৎসবে সরকারি ভোগ্যপণ্য বরাদ্দের ব্যবস্থা করা।

আগামীকাল রবিবার দুপুর ১২টায় মাতৃসম্মেলন উদ্বোধন করবেন রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ শক্তিনাথানন্দজী মহারাজ। বিকেল ৩টায় রয়েছে ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বিকেল ৫টায় সনাতন ধর্মমহাসম্মেলন। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বালন করবেন ঋষিধাম ও তুলসীধামের মোহন্ত মহারাজ সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজ। উদ্বোধন করবেন কৈবল্যধামের মোহন্ত মহারাজ অশোক কুমার চট্টোপাধ্যায়। রাতে রয়েছে জন্মাষ্টমী পূজা ও ষোড়শ প্রহরব্যাপী মহানাম সংকীর্তনের শুভ অধিবাস। সোমবার ভোর থেকে অহোরাত্রি মহানাম সংকীর্তন শুরু হবে। সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প, চোখ পরীক্ষা ও ব্লাড গ্রুপিং থাকছে। মঙ্গলবার ব্রাহ্ম মুহূর্তে থাকবে মহানাম সংকীর্তনের সমাপন। প্রতিদিন দুপুর ও রাতে মহাপ্রসাদ বিতরণ আয়োজনও রয়েছে।



মন্তব্য