kalerkantho


স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

দল ছাড়ার চেষ্টা করলে করুণ পরিণতি হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘যারা এত দিন আওয়ামী লীগের সুনাম ব্যবহার করেছে, আওয়ামী লীগ করে অর্থ কামিয়ে নিজেদের দুরবস্থা দূর করেছে, তাদের এখন আওয়ামী লীগ থেকে সরে যাওয়ার কোনো উপায় নেই। সেই চেষ্টা করলে তাদের করুণ পরিণতি হবে। যারা এমন চিন্তা করছে তারা নিমক হারামের দলভুক্ত হবে। দলের নেতাকর্মীরাই তাদের পিঠের চামড়া তুলে নেবে।’

জাতীয় শোক দিবস সামনে রেখে ফরিদপুরে গতকাল বৃহস্পতিবার জেলা যুবলীগের তৃণমূল নেতাদের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী এসব কথা বলেন। জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এ এইচ এম ফুয়াদের সভাপতিত্বে শহরতলির বদরপুরে মন্ত্রীর নিজ বাসভবন আফসানা মঞ্জিল চত্বরে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘যুবলীগ একটি সুসংগঠিত সংগঠন। যুবলীগ নেতাকর্মীরা সব সময় সরকারের সফলতা প্রচার করে এসেছে। দল এত দিন নেতাদের কাছে কিছু চায়নি। সময় এসেছে দলের জন্য নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করার।’ তিনি বলেন, ‘ফরিদপুর এখন বাংলাদেশের পঞ্চম উন্নত জেলা। আর এখানে আওয়ামী লীগ শক্ত অবস্থানে রয়েছে। আগামী নির্বাচনেও বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফের ক্ষমতায় আসবেন। রূপকল্প অনুযায়ী তিনি দেশকে ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের কাতারে উন্নীত করবেন।’

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘আগস্ট মাস আমাদের পাথরসম শোকের মাস। শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের প্রতি আমরা সর্বোচ্চ সমবেদনা জানাব। আবেগ সংযত করে শোককে শক্তিতে পরিণত করব।’

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর জামাতা খন্দকার মাশরুর হোসেন মিতু। ফরিদপুরকে আরো উন্নত করতে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোটদানের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা কৃতজ্ঞ। মানুষ আমাদের ওপর বিশ্বাস ও আস্থা রেখেছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের নাতি খন্দকার জারিফ হোসেনও সভায় উপস্থিত ছিলেন।

 



মন্তব্য