kalerkantho


তিন মাদক ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০



চুয়াডাঙ্গা, সিরাজগঞ্জ ও টাঙ্গাইলে নিহত হয়েছে তিনজন মাদক ব্যবসায়ী। সিরাজগঞ্জে পুলিশ বন্দুকযুদ্ধের কথা জানালেও অন্য দুটি স্থানে মাদক ব্যবসায়ীরা নিহত হয়েছে অভ্যন্তরীণ কোন্দলে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো রিপোর্টে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় ওল্টু হোসেনের লাশ উদ্ধার হয়েছে গতকাল শনিবার সকালে। সিরাজগঞ্জে শুক্রবার গভীর রাতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। টাঙ্গাইলে গতকাল সকালে চারাবাড়ি এলাকা থেকে উদ্ধার হয়েছে আব্দুল মান্নান নামের একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানাগুলোতে একাধিক মামলা রয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় নিহত ওল্টু হোসেন গোবিন্দপুর স্টেশনপাড়ার মৃত মহসিন আলীর ছেলে। গতকাল সকাল ১০টায় এলাকাবাসীর মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে পুলিশ সাতকপাট এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।

আলমডাঙ্গা থানার এসআই নাজিম উদ্দিন জানান, ওল্টু হোসেনের বুকের ডানপাশে ও মাথায় একটি করে গুলি করা হয়েছে। অজ্ঞাতপরিচয় দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে ১০-১২টি মামলা আছে।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি আবু দাউদ জানান, শুক্রবার গভীর রাতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত রেলওয়ে কলোনির জাহাঙ্গীর চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। শহরের মাহমুদপুরে পুলিশ অভিযান চালালে মাদক কারবারিরা গুলি চালায়। পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে তারা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে জাহাঙ্গীরকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনায় পুলিশের তিনজন আহত হয়েছেন। জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে থানায় অন্তত সাতটি মামলা রয়েছে।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার চারাবাড়ি এলাকা থেকে গতকাল সকালে পুলিশ আব্দুল মান্নান নামের একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে। তার বাড়ি টাঙ্গাইল পৌর এলাকার কান্দাপাড়া এলাকায়।

টাঙ্গাইল মডেল থানার ওসি সায়েদুর রহমান জানান, ভোররাতে চারাবাড়ি এসডিএস ফার্মের পতিত জমিতে মাদক ব্যবসায়ীরা অবস্থান করছিল। সেখানে লেনদেন নিয়ে বিরোধে কয়েক রাউন্ড গুলির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ পৌঁছে ইয়াবা ব্যবসায়ী মান্নানের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে। ঘটনাস্থল থেকে ছয় রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্র ও ২০০ ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে। মান্নানের বিরুদ্ধে সদর থানায় ছয়টি মামলা রয়েছে।



মন্তব্য