kalerkantho


পুলিশের বিরুদ্ধে মওদুদের ইফতার মাহফিল ভণ্ডুল করার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

১১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের রামপুর ইউনিয়নে বিএনপির একটি ইফতার অনুষ্ঠান পুলিশ ভণ্ডুল করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রবিবারের ওই ইফতার অনুষ্ঠানে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের উপস্থিত থাকার কথা ছিল। পুলিশ সকালে অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে প্যান্ডেল ভেঙে দিয়েছে। আর বিকেলে সেখানে যাওয়ার পথে ব্যারিস্টার মওদুদকে বাধা দিয়েছে। ব্যারিস্টার মওদুদ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘এ ঘটনা ১৯৭৪ সালের রক্ষীবাহিনীর কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।’

রামপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবুল কাশেম বুলবুল জানান, ব্যারিস্টার মওদুদ তাঁর নির্বাচনী এলাকায় আসছেন জেনে ইউনিয়ন বিএনপি রবিবার বিকেলে রামপুর ইউনিয়নের বামনী বাজারসংলগ্ন হাজি আবু তাহেরের বাড়িতে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে। বিষয়টি জানতে পেরে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) রবিউল হক শনিবার রাতে এসে তাদের এই বলে শাসিয়ে যান যে এখানে কোনো ইফতারের আয়োজন করা যাবে না। পুলিশের কথায় কান না দিয়ে রবিবার সকালে সেখানে ইফতার অনুষ্ঠানের জন্য প্যান্ডেল নির্মাণের কাজ অব্যাহত রাখে বিএনপি। দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ ও ডিবি পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের প্যান্ডেল খুলে ফেলে এবং চুলার মধ্যে পানি ঢেলে দেয়। তখন নেতাকর্মীরা সেখান থেকে সরে যায় এবং বিষয়টি তাদের নেতা ব্যারিস্টার মওদুদকে অবহিত করে। বিকেলে ব্যারিস্টার মওদুদ সেখানে যাওয়ার জন্য রওনা হলে পথে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ নিরাপত্তার দোহাই দিয়ে তাঁকে আটকে দেয়। পরে তিনি নেতাকর্মীদের নিয়ে পথে অন্যত্র ইফতার করেন।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, এ ধরনের কোনো ঘটনার বিষয় তাঁর জানা নেই। তবে ব্যারিস্টার মওদুদের নিরাপত্তার বিষয় এবং দলীয় কোন্দলের কথা বিবেচনা করে তাঁকে রামপুর না যাওয়ার অনুরোধ জানালে তিনি বাড়িতে ফিরে যান। ওসি জানান, প্যান্ডেল ভাঙার বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখবেন। পুলিশ বিভিন্ন অভিযানে প্রতিনিয়তই অনেক জায়গায় গিয়ে থাকে। সেভাবে সেখানে কেউ গেছে কি না, তাও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান তিনি।

কোম্পানীগঞ্জের ওসি (তদন্ত) রবিউল হক জানান, তিনি বা কোনো পুলিশ কোথাও কারো প্যান্ডেল ভাঙচুর করেনি। তবে সেখানে অন্য মামলার আসামি ধরতে এবং পুলিশের নিয়মিত টহল হিসেবে গেছেন বলে জানান তিনি। নোয়াখালী ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কোথাও প্যান্ডেল ভাঙচুর বা ইফতার অনুষ্ঠান বন্ধ করার জন্য যাননি তিনি।

গতকাল বিকেলে নিজের বাড়িতে স্থানীয় সাংবাদিকদের ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাট নিয়ে গঠিত এই নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালী-৫ আসনে আমি পাঁচবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি।’



মন্তব্য