kalerkantho


শ্রমিকের সাহায্যে কল্যাণ তহবিল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার ভ্যানচালক আলতাফ মণ্ডল মাসখানেক আগে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হলে ডান পা অকেজো হয়ে যায়। দুর্ঘটনার পর পাঁচ সদস্যের পরিবার নিয়ে চলতে পারছিলেন না তিনি। তাই আর্থিক সহায়তা চেয়ে তিনি সরকারের কাছে আবেদন করেন। বর্তমানে তাঁর আবেদন যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে। এক মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

আলতাফ মণ্ডলের মতো সারা দেশ থেকে এমন শত শত শ্রমিকের আবেদন জমা হয়েছে শ্রম কল্যাণ তহবিলে। জেলা পর্যায় থেকে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে আর রাজধানীতে সচিবালয়ে বা দৈনিক বাংলা মোড়ে শ্রম অধিদপ্তরে এমন সাহায্যের আবেদন করা যাবে।

প্রতিটি জেলায় শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনে এর আবেদন ফরম পাওয়া যায়। ঢাকায় সচিবালয়ে বা দৈনিক বাংলা মোড়ের কাছে শ্রম অধিদপ্তরেও এ আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। এ ক্ষেত্রে টাকা পেতে সর্বোচ্চ তিন মাস অপেক্ষা করতে হতে পারে।

জানতে চাইলে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক বা অপ্রাতিষ্ঠানিক যেকোনো শ্রমিকই সরকারের এ কল্যাণ ফান্ডে সাহায্যের জন্য আবেদন করতে পারে। যেসব শ্রমিক কোনো প্রতিষ্ঠানের অধীনে শ্রম দেয় না বা কারো চাকরিও করে না, তারাও কোনো সমস্যায় পড়লে সরকার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে। এসংক্রান্ত একটি তহবিল গঠন করা হয়েছে। ওই তহবিলে এরই মধ্যে ২৯০ কোটি টাকা জমা পড়েছে। এখন প্রয়োজন অনুযায়ী শ্রমিকদের সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন আইন প্রণয়নের মাধ্যমে অসচ্ছল শ্রমিকদের আর্থিক সেবাদানের উদ্যোগ নেয়। শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ২০ সদস্যের পরিচালনা বোর্ড এ ফাউন্ডেশন পরিচালনা করে থাকে।



মন্তব্য