kalerkantho


অভিযানের প্রতিবাদ

রাজশাহীতে ধর্মঘট ওষুধ দোকান মালিকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



রাজশাহী নগরীর লক্ষ্মীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে একটি ওষুধের দোকানে জরিমানার প্রতিবাদে সব ফার্মেসি বন্ধ করে ধর্মঘট শুরু করেন মালিকরা। গতকাল রবিবার বিকেল ৪টার দিক থেকে এ ধর্মঘট শুরু করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামাল উদ্দিন এ অভিযান চালান; কিন্তু এক দোকানে অভিযান শুরু হওয়ার পর পরই অন্যান্য ওষুধের দোকান মালিকরা দোকান বন্ধ করে ধর্মঘট শুরু করেন।

এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন রাজশাহীর মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিত্সাধীন সহস্রাধিক রোগীসহ নগরীর অন্যান্য বেসরকারি হাসপাতালে চিকিত্সাধীন ও চিকিত্সাসেবা নিতে আসা রোগী এবং তাঁদের স্বজনরা।

জরুরি ওষুধের জন্য কেউ কেউ লক্ষ্মীপুরের এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত ছোটাছুটি করতে থাকে; কিন্তু দোকানগুলো বন্ধ থাকায় কোথাও মিলছিল না ওষুধ। ফলে চরম ক্ষোভও দেখা দেয় রোগীর স্বজনদের মাঝে।

স্থানীয়রা জানায়, গতকাল বিকেলে নগরীর লক্ষ্মীপুরে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার এলাকায় সিদ্দিকা ফার্মেসিতে সরকারি ওষুধ, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ, ট্রেড লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ থাকার দায়ে দোকান মালিকের ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে লক্ষ্মীপুর এলাকার সব ওষুধের দোকান মালিকরা দোকান বন্ধ করে ধর্মঘট শুরু করেন। ফলে আর কোনো ওষুধের দোকানে অভিযান না করেই ফিরে যেতে হয় ভ্রাম্যমাণ আদালতকে।

রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, ‘একটি ওষুধের দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালানোর ঘটনায় নগরীর লক্ষ্মীপুরের সব দোকান মালিক একযোগে ধর্মঘট শুরু করেন। তবে দোকান মালিকদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সমঝোতার চেষ্টা চলছে।

যোগাযোগ করা হলে রাজশাহী ফার্মেসি মালিক সমিতির প্রচার সম্পাদক ফয়সাল কবির চৌধূরী বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নামে ওষুধ ব্যবসায়ীদের হয়রানি করা হচ্ছে। এ কারণে ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদে ধর্মঘট শুরু করেছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর হয়রানি না করার আশ্বাস পেলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হবে।

 


মন্তব্য