kalerkantho


ডিবিসি ক্যামেরাপারসনকে নির্যাতন

বরিশালে আরো ৫ পুলিশ বরখাস্ত

বরিশাল অফিস   

২০ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



বরিশালে আরো ৫ পুলিশ বরখাস্ত

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসির বরিশালের ক্যামেরাপারসন সুমন হাসানকে নির্যাতনের ঘটনায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের দলটির বাকি পাঁচ সদস্যকেও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল সোমবার মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এস এম রুহুল আমীনের স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। গতকাল দুপুরে মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

ডিবি পুলিশের বরখাস্ত করা পাঁচ সদস্য হলেন উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবুল বাসার, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. আকতারুজ্জামান, স্বপন চন্দ্র দে, কনস্টেবল কাজী সাইফুল ইসলাম ও মো. হাসান মামুদ। একই ঘটনায় এর আগে তিন পুলিশ সদস্য মাকসুদুল হক, আব্দুর রহিম ও মো. রাসেলকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।

পুলিশ কমিশনার রুহুল আমীন বলেন, ঘটনার পরের দিন ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার রুনা লায়লাকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ওই কমিটি গত বৃহস্পতিবার প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনের ওপর নির্ভর করে বাকি পাঁচজনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি ওই ৮ জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশের জবাব পাওয়ার পর তাঁদের বিরুদ্ধে অপরাধ অনুযায়ী বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার দুপুরে নগরীর বিউটি রোড এলাকায় ডিবি পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানের তথ্য সংগ্রহের জন্য ডিবিসির ক্যামেরাপারসন সুমন হাসান ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের সঙ্গে তাঁর বাগিবতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে সুমনকে পুলিশ সদস্যরা মারধর করেন এবং টেনেহিঁচড়ে তাঁদের পিকআপে উঠিয়ে নির্যাতন চালান। পরে ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে আরেক দফা তাঁর ওপর নির্যাতন চালানো হয়। খবর পেয়ে বরিশালে কর্তব্যরত সাংবাদিকরা ডিবি কার্যালয়ে গিয়ে সুমনকে উদ্ধার করে শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। এ ঘটনায় ওই রাতেই অভিযান টিমে থাকা পুলিশের আট সদস্যকে ডিবি কার্যালয় থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়।



মন্তব্য