kalerkantho


রাজশাহী ও জামালপুরে দুজনকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ও জামালপুর প্রতিনিধি   

১৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



রাজশাহীর পবা ও জামালপুর সদরের দিগপাইতে গতকাল সোমবার পিটিয়ে দুজনকে হত্যা করা হয়েছে। এর মধ্যে পবায় নিহত ছিদ্দিকুর রহমানের (৫৫) মৃত্যু হয় চাচাতো ভাইয়ের হাতে। অন্যদিকে দিগপাইতে বাবর আলী (৪০) মারা যান সালিস বৈঠকের সময়।

পবার নওহাটা পৌর এলাকার বাঘাটা মহল্লার বাসিন্দা ছিদ্দিকুর রহমান (৫৫) পেশায় ভ্যানচালক ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য, গতকাল সকাল ৯টার দিকে ছিদ্দিকুর ভ্যান চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। ফেরার পথে চাচাতো ভাই আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ির সামনে ভ্যানের চাকার নিচে পড়ে একটি হাঁসের বাচ্চার মৃত্যু হয়। এ নিয়ে আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী ইজমা বেগমের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয় ছিদ্দিকুরের। একপর্যায়ে আব্দুর রাজ্জাক, তাঁর বাবা আরিম উদ্দিন ও ভাই মাহাবুর লাঠি দিয়ে ছিদ্দিকুরকে বেধড়ক পেটান। এতে ঘটনাস্থলেই ছিদ্দিকুরের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ ইজমা বেগম (৩৬), আরিম উদ্দিন (৫৮) ও মাহাবুরকে (৩৫) আটক করেছে। আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার পর থেকেই পলাতক।

জামালপুর সদরের দিগপাইত ইউনিয়নে শাহপাড়া গ্রামে নিহত বাবর আলী স্থানীয় ৭ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। গ্রামের লোকজন জানায়, একটি রাস্তা নিয়ে ওই গ্রামের কাজেম উদ্দিন ও ময়েজ উদ্দিনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। ওই বিরোধ মেটাতে বাবর আলী (৪০) গতকাল সকালে ময়েজ উদ্দিনের বাড়িতে সালিস ডাকেন। সেখানে উভয় পক্ষের মধ্যে ঝগড়া বেধে যায়। একপর্যায়ে ময়েজ উদ্দিনের পক্ষের একজন কাঠ দিয়ে বাবর আলীর মাথায় আঘাত করে। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়। নারায়ণপুর পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের এসআই মো. জয়নাল আবেদীন জানান, এ ঘটনায় জামালপুর সদর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।



মন্তব্য