kalerkantho


আন্তর্জাতিক নারী দিবস

প্রশাসনে সিদ্ধান্ত গ্রহণে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে

আশরাফুল হক   

৮ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



প্রশাসনে সিদ্ধান্ত গ্রহণে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে। মন্ত্রণালয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে তাঁরা বিভিন্ন নীতিনির্ধারণী সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। জেলা ও উপজেলা প্রশাসন চালাতে গিয়ে তাঁদের তাত্ক্ষণিক বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিতে হয়। দেশের ১১৩টি উপজেলা প্রশাসনই চালাচ্ছেন নারীরা।

একসময় প্রশাসন ক্যাডারে নারীদের নিয়োগই করা হতো না। ১৯৮২ সালে প্রথম প্রশাসন ক্যাডারে নারীদের নিয়োগ করা হয়। ১৯৯৬ সালে চার নারী কর্মকর্তাকে প্রথমবারের মতো ডিসি (জেলা প্রশাসক) পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। বর্তমান প্রশাসনে সচিব পদে ১০ নারী দায়িত্ব পালন করছেন। জেলা প্রশাসক পদে রয়েছেন বেশ কয়েকজন।

তবে বিসিএস উইমেন নেটওয়ার্কের তথ্য মতে, নারীরা যে হারে সিভিল সার্ভিসে যোগ দিচ্ছেন, সেই হারে পদোন্নতি পাচ্ছেন না। ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত পদোন্নতির তথ্য পর্যালোচনা করে সংগঠনটি বলছে, যুগ্ম সচিব পদে ১১.৮৭ শতাংশ, অতিরিক্ত সচিব পদে ১৮.১২ শতাংশ এবং সচিব পদে ৮ শতাংশ পদোন্নতি পান নারী। যুগ্ম সচিব থেকে অতিরিক্ত সচিব পদে নারীর পদোন্নতি ৭ শতাংশ বাড়লেও সচিব পদে তা ১০ শতাংশ কমে যায়।

বর্তমান প্রশাসনে সচিব পদে যে ১০ নারী রয়েছেন তাঁরা হচ্ছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে নাসিমা বেগম, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগে মাফরূহা সুলতানা, পাবলিক সার্ভিস কমিশনে আখতারী মমতাজ, হাইটেক পার্ক অথরিটিতে হোসনে আরা বেগম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য জোয়েনা আজিজ, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ ও জ্বালানি গবেষণা কাউন্সিলের চেয়ারম্যান সাহিন আহমেদ চৌধুরী, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে আফরোজা খান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিভাগে নমিতা হালদার, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমিতে নাসরিন আখতার এবং পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শামীমা নারগিস।

জেলা প্রশাসক পদে কাজ করছেন সিরাজগঞ্জে কামরুন নাহার সিদ্দীকা, ফরিদপুরে উম্মে সালমা তানজিয়া, মুন্সীগঞ্জে সায়লা ফারজানা, নাটোরে শাহীনা খাতুন ও কুড়িগ্রামে সুলতানা পারভীন। এ ছাড়া নরসিংদীর জেলা প্রশাসক পদে যোগদান করতে যাচ্ছেন সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন।

দেশের ১১৩টি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) দায়িত্ব পালন করছেন নারীরা। কোনো কোনো জেলার বেশির ভাগ উপজেলাতেই নারীরা ইউএনওর দায়িত্ব পালন করছেন। আগে নারী কর্মকর্তাদের বেশির ভাগই ঢাকাকেন্দ্রিক পদগুলোতে থাকত। এখন ডিসি ও ইউএনওর মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে শুরু করে বিভাগ, জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন নারীরা।

জনপ্রশাসন সচিব মোজাম্মেল হক খান কালের কণ্ঠকে বলেন, সরকার নারীদের সামনে এগিয়ে আনার জন্য নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। একটা সময় দেখা যাবে প্রশাসনে নারী-পুরুষ সমান হবে। তৃণমূল প্রশাসনে সিদ্ধান্ত গ্রহণের গুরুত্বপূর্ণ পদে নারীর এই অগ্রগতি বেশ ইতিবাচক।



মন্তব্য