kalerkantho


গাইবান্ধায় এরশাদ

আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ এখন পরিবর্তন চায়।  আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনেই  প্রার্থী দেবে জাতীয় পার্টি। বিপুল জনসমর্থন নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের মাধ্যমে জাপা সরকার গঠন করবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এরশাদের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পীর গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের বাসভবনে গতকাল রবিবার দুপুরে মধ্যাহ্নভোজের আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, গাইবান্ধার পাঁচটি আসনের মধ্যে চারটিতে জাতীয় পার্টির প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। তাঁরা হলেন গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, গাইবান্ধা-২ (সদর) আসনে আব্দুর রশিদ সরকার, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে অ্যাডভোকেট এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জু। এ ছাড়া গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে প্রার্থীর নাম খুব শিগগির ঘোষণা করা হবে বলে তিনি জানান।

এরশাদ বলেন, দেশে খুন, গুম, অপহরণের ঘটনা বেড়ে গেছে। জনগণ এসব দেখতে চায় না। তিনি বলেন, তাঁর দল সংসদে বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করতে চায়। এ জন্য শিগগিরই দলীয় মন্ত্রীরা পদত্যাগ করবেন। তাঁদের পদত্যাগের পর তিনিও বিশেষ দূতের পদ থেকে পদত্যাগ করবেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাঁর দল মহাজোটে থাকবে কি না তা এখনই বলার সময় আসেনি। সময়ই তা বলে দেবে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক উপদেষ্টা দিলারা খন্দকার শিল্পী ছাড়াও অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রশিদ সরকার, প্রেসিডিয়াম সদস্য অবসরপ্রাপ্ত মেজর খালেদ আকতার, সদর থানা জাপা সভাপতি শাহজাহান খান আবু প্রমুখ। এরশাদের আগমন উপলক্ষে সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী উপজেলার বিপুলসংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী সেখানে উপস্থিত ছিল।

 


মন্তব্য