kalerkantho


মালিতে চার শান্তিরক্ষী বাংলাদেশি নিহত

শিবগঞ্জে সৈনিক জামালের বাড়িতে মাতম

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



শিবগঞ্জে সৈনিক জামালের বাড়িতে মাতম

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে সেনা সদস্য জামালের শোকস্তব্ধ স্বজনরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালিতে মাইন বিস্ফোরণে নিহত চার বাংলদেশি শান্তিরক্ষীর একজন জামাল উদ্দিন। চাঁপাইনবাবগঞ্জে তাঁর বাড়িতে চলছে মাতম। লাশের অপেক্ষায় দিন গুনছে স্বজনরা। কবে নাগাদ চার শান্তিরক্ষীর লাশ দেশে আনা হবে তা নিশ্চিত হয়নি। তবে মালিতে থাকা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এক সৈনিক ফোনে জামালের পরিবারকে জানিয়েছেন, সব প্রক্রিয়া শেষ হলে রবিবার চার শান্তিরক্ষীর লাশ দেশে পাঠানো হতে পারে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ঘোড়াপাখিয়া ইউনিয়নের ধুমিহায়াতপুর ঘাইসাপাড়া গ্রামে সৈনিক জামাল উদ্দিনের বাড়ি। ২০০৫ সালে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ৯ মাস আগে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে মালিতে যান তিনি। প্রায় সাত বছর আগে তিনি বিয়ে করেন। তাঁর সাড়ে পাঁচ বছর বয়সী একটি সন্তান রয়েছে।

গত বুধবার মালির মোপ্তি এলাকায় গাড়িতে করে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা মাইন বিস্ফোরণে নিহত হন জামালসহ চার শান্তিরক্ষী। গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সেনা সদর দপ্তর থেকে টেলিফোনে বিষয়টি জানানো হয় জামালের পরিবারকে। এর পর থেকেই এই বাড়িতে চলছে মাতম।

গতকাল সরেজমিনে জামালের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বাবা মেসের আলী ও মা ফেরদৌসী বেগম, স্ত্রী ফাহিমা আখতার শিল্পী অবিরত আহাজারি করছেন। প্রতিবেশীরা তাঁদের সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তবে গতকাল পর্যন্ত স্থানীয় প্রশাসনের কেউ তাদের খোঁজখবর নেয়নি।

নিহত জামালের চাচা আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘লাশ বাড়িতে ফিরলে ধুমি হায়াতপুর ঘাসিয়াপাড়া কেন্দ ীয় গোরস্থানে দাফন করা হবে। আমাদের একটাই চাওয়া, দ্রুত লাশ দেশে ফিরিয়ে আনা হোক।’  

জামালের বাবা মেসের আলী বলেন, ‘জামালের কর্মস্থল যশোর সেনানিবাস থেকে আমাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করছেন সেনা কর্মকর্তারা। তবে লাশ ফেরার ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি। আমরা ছেলের লাশের অপেক্ষায় আছি।’

 



মন্তব্য