kalerkantho


বড়াইগ্রামে শিশুধর্ষণে ‘মনগড়া’ প্রতিবেদন

চিকিৎসকের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

নাটোর প্রতিনিধি   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নাটোরের বড়াইগ্রামে শিশু ধর্ষণের ঘটনায় ডাক্তারি পরীক্ষার প্রতিবেদনে অসংগতি রয়েছে—এমন দাবি করে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের শাস্তির চেয়ে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। গতকাল বুধবার বিকেলে উপজেলার বনপাড়া পৌরশহরের হাইওয়ে থানা সড়কে এ মানববন্ধন হয়। এতে শিশুটির পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিল।

জানা যায়, ঘটনার দিন দুপুর দেড়টার দিকে বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. ডলি রাণী শিশুটির মেডিক্যাল পরীক্ষা সম্পন্ন করেন। অথচ মেডিক্যাল রিপোর্টে তারিখ দেখানো হয়েছে আগের দিন ২৪ জানুয়ারি। এ ছাড়া ব্যবস্থাপত্রে লেখা রয়েছে সেক্সুয়্যাল অ্যাসাল্ট, দেওয়া হয়েছে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন এন্টিবায়োটিক ও ব্যথানাশক ওষুধ। এ ছাড়া মানসিক অবস্থা খারাপ বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে জানতে ডা. ডলি রাণীকে মোবাইলে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তহছেনুজ্জামান জানান, প্রাথমিক তদন্তে আসামি ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। মামলা করার পরের দিন আসামি মাহবুরকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।



মন্তব্য