kalerkantho


সাতক্ষীরায় হকিপেটায় স্কুলছাত্র খুন

সহপাঠী আহত, ছয়জনকে আটক

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সাতক্ষীরায় হকিপেটায় স্কুলছাত্র খুন

নাজমুল সাকিব

সাতক্ষীরায় ‘সন্ত্রাসীদের’ হকিস্টিকের আঘাতে পুলিশপুত্র নাজমুল সাকিব খুন হয়েছে। এ সময় তার সহপাঠী আবু রাশেদ আহত হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার রাতে শহরতলির বকচরা বাইপাস সড়কে ভ্যানচালক রমজান আলীর বাড়ির পাশে। এ ব্যাপারে সাকিবের বাবা মামলা করেছেন।

সাকিব সাতক্ষীরা পুলিশ লাইনস স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়ত। সে কলারোয়া উপজেলার সরসকাটি পুলিশ ক্যাম্পের কনস্টেবল নজরুল ইসলামের ছেলে। আর রাশেদ অবসরপ্রাপ্ত কনস্টেবল আবদুল আজিজের ছেলে। সে সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে।

এ ঘটনায় মূল ঘাতকসহ ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলো শহরতলির কামাননগরের হাফিজুল ইসলাম, মেহেদি হাসান ফয়সল, যুবায়ের হোসেন, রনি ও শাহিনুর এবং ইটাগাছার আবু হাসান। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

সাকিবের বাবা নজরুল জানান, খুলনার দিঘলিয়া থানার ব্রহ্মগাতি গ্রামে তাঁদের বাড়ি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাঁর ছেলে সাকিব এবং দুই বন্ধু রাশেদ ও শামীমউজ্জামান অমি বকচরায় ওয়াজ মাহফিল শুনতে যায়। সেখানে খাবার কেনা নিয়ে কামাননগর কলোনির কাদের ও শান্তর সঙ্গে তাদের ঝগড়া হয়। পরে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হলেও স্থানীয়রা বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। একপর্যায়ে তিন বন্ধু ফিরে আসার পথে পেছন থেকে ‘সন্ত্রাসীরা’ হকিস্টিক দিয়ে তাদের আঘাত করে। এ সময় অমি দৌড়ে পালিয়ে যেতে পারলেও সাকিব ও রাশেদ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর থানার ওসি মারুফ আহমেদ জানান, সাকিবের সঙ্গে তার সহপাঠী কামাননগরের ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। একে কেন্দ্র করেই ঘটনাটি ঘটেছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ওসি আরো জানান, প্রধান হামলাকারী চিহ্নিত করা গেছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আহত অমি আজ (গতকাল বুধবার) প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছে।

 

 



মন্তব্য