kalerkantho


ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উল্টো পথে লরি পথচারী নিহত

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উল্টো পথে আসা একটি লরির চাপায় মো. আনিস উদ্দৌল্লা ওরফে আনিস (৪৫) নামের এক পথচারী নিহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ির পাক্কা মসজিদ এলাকায় কেডিএস লজিস্টিক লিমিটেডের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর লরি ফেলে চালক পালিয়ে গেছে।

নিহত আনিস সোনাইছড়ি এলাকার আইনুল কামাল বাড়ির আব্দুল কালামের ছেলে।

উল্টো পথে গাড়ি এসে পথচারীকে চাপা দেওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ জনতা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করলে ২০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুর্ঘটনার জন্য দায়ী লরিটি আটক করে। এর চালককে খুঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থার আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ লোকজন অবরোধ তুলে নেয়।

স্থানীয় লোকজন জানায়, ওই লরিটি সোনাইছড়ির পাক্কা মসজিদ এলাকায় কেডিএস লজিস্টিক লিমিটেডের সামনে ইউটার্ন নিয়ে উল্টো পথে যাওয়ার সময় পথচারী আনিসকে চাপা দেয়। এতে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ার পর ক্ষুব্ধ লোকজন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে। প্রায় আধাঘণ্টার অবরোধে ঘটনাস্থলের উভয় দিকে অন্তত ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত সড়কে যানজট দেখা দেয়।

এলাকাবাসী জানায়, ওই এলাকায় প্রায়ই উল্টো পথে গাড়ি চলে। স্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান ও পেট্রল পাম্পে এভাবে উল্টো পথে গাড়ি চলাচল করায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. জহুরুল আলম বলেন, উল্টো পথে আসা গাড়ির চাপায় এভাবে কারো মৃত্যু মেনে নেওয়া যায় না। চালকের অনিয়মের কারণেই এভাবে একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটছে। এর আগেও এখানে এভাবে ছয়-সাতজন প্রাণ হারিয়েছে বলে তিনি জানান।

বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার ওসি মো. আহসান হাবীব বলেন, সোনাইছড়ির পাক্কা মসজিদ এলাকায় উল্টো দিক থেকে আসা লরিচাপায় এক ব্যক্তি মারা যাওয়ায় এলাকাবাসী সড়ক অবরোধ করেছিল। লরির চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থার আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নিয়েছে। এর পর থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।



মন্তব্য