kalerkantho


কবীর চৌধুরী স্মারক বক্তৃতা

শুধু অস্ত্র দিয়ে জঙ্গিবাদ নির্মূল সম্ভব নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আমাদের দেশে বিরাজমান সংকট অনেক গভীর। এমন পরিস্থিতিতে শুধু অস্ত্র দিয়ে জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা নির্মূল করার সম্ভব নয়। এর সমাধানে দৃষ্টি দিতে হবে শিকড়ে। দৃষ্টি দিতে হবে তরুণদের প্রতি। সব সামাজিক শক্তির উদ্যোগে মানবিক চেতনা জাগ্রত করে মানুষের মনোজগতে পরিবর্তন আনতে হবে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত অধ্যাপক কবীর চৌধুরীর ৯৬তম জন্মদিন উপলক্ষে কবীর চৌধুরী স্মারক বক্তৃতা-৭ ‘সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদ প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক আন্দোলন’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধে এসব কথা বলা হয়। ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির উদ্যোগে ভাষাসৈনিক কামাল লোহানীর সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার।

পাকিস্তান আমল থেকে শুরু করে আমৃত্য এ দেশের সংস্কৃতি আন্দোলনে কবীর চৌধুরীর অসামান্য ভূমিকা তুলে ধরে বলা হয়, তিনি ছিলেন সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদবিরোধী একজন পরিপূর্ণ মানুষ। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি মৌলবাদের বিরুদ্ধে লড়েছেন আপসহীন। তাঁকে কাফের আখ্যা দেওয়া হয়েছে, মুরদাত বলা হয়েছে, কিন্তু তিনি পিছু হটেননি। তিনি ছিলেন একজন মানবতাবাদী দার্শনিক।

এই স্মারক বক্তৃতা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন শহীদ কন্যা শমী কায়সার, শহীদ মুনীর চৌধুরীর সন্তান আসিফ মুনীর তন্ময়, শহীদ জায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান প্রমুখ।

কামাল লোহানী বলেন, কবীর চৌধুরী তাঁর দীর্ঘ জীবনে দেখিয়ে গেছেন কিভাবে দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে মানব কল্যাণে আপসহীন লড়তে হয়।



মন্তব্য