kalerkantho


হবিগঞ্জে কৃষক হত্যা মামলা

১০ জনের ফাঁসির রায়

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বাঘজুর গ্রামে কৃষক আব্দুর রাজ্জাক ওরফে নিবরশাহ মিয়া হত্যা মামলায় ১০ জনের ফাঁসির রায় দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ১৭ জনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন এ রায় দেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো আব্দুর রহমান, আব্দুস সালাম, আব্দুল হান্নান, নসিমউল্লা, রমিজ আলী, তরিক উল্লাহ, আব্দুল মান্নান, বাচ্চু মিয়া, ইউসুফ উল্লা ও আব্দুল মতলিব। এর মধ্যে আব্দুর রহমান, আব্দুস সালাম ও আব্দুল হান্নান পলাতক রয়েছে। অন্যরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিল।

মামলায় বেকসুর খালাসপ্রাপ্তরা হলেন আইয়ুব আলী, জামাল উদ্দিন, নুর ইসলাম, আব্দুর রউফ, আব্দুল বারিক, আব্দুন নূর, মৃত অসিম উল্লা, মৃত শারাফত উল্লা, রফিক উল্লা, খুরশেদ আলী, আব্দুল হামিদ, আব্দুল হামিদ-২, আব্দুল হক, আব্দুল মান্নান, মৃত আব্দুস সোবহান ও সিরাজ।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০১ সালের ২৯ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৫টায় বাঘজুর গ্রামের মসজিদে যাওয়ার পথে কৃষক আব্দুর রাজ্জাক ওরফে নিবরশাহ মিয়াকে হত্যা করা হয়। ওই দিন রাতেই নিবরশাহ মিয়ার ছেলে হারুন মিয়া বাদী হয়ে বানিয়াচং থানায় ২৭ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। বানািয়াচং থানার এসআই অরুণ চন্দ্র চন্দ অভিযোগপত্র দাখিল করলে ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক ১০ জনকে ফাঁসির আদেশ ও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। হত্যাকাণ্ডের দীর্ঘ ১৮ বছর পর এই রায় দিলেন আদালত। রায় প্রদানকালে নিহত নিবরশাহ মিয়ার ছেলে ও মামলার বাদী হারুন মিয়া আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি রায় শুনে কান্নায় ভেঙে পড়েন এবং এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক জানান, আসামিপক্ষ উচ্চ আদালত থেকে স্থগিত করে রাখায় মামলাটির রায় ঘোষণা হতে ১৮ বছর লেগেছে। এই রায়ে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘এই রায়ের মাধ্যমে ন্যায়বিচার নিশ্চিত হয়েছে। অপরাধীরা শাস্তি পাওয়ায় ভবিষ্যতে অপরাধপ্রবণতা হ্রাস পাবে।’

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করব।’



মন্তব্য