kalerkantho


ইমদাদুল হক মিলন

আমরা চাই শিক্ষিত সন্তান মানুষের মতো মানুষ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আমরা চাই শিক্ষিত সন্তান মানুষের মতো মানুষ

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের রাজদিয়া অভয় পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদ্‌যাপন অনুষ্ঠানে খুদে শিক্ষার্থীদের মাঝে কথাসাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন। ছবি : কালের কণ্ঠ

‘যখন ভাঙল, ভাঙল মিলন-মেলা ভাঙল/ভেবেছিলেম ভুলবো না আর চোখেরও জল ফেলা/ভাঙল, ভাঙল মিলন-মেলা’। মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের ইছাপুরা ইউনিয়নের ‘রাজদিয়া অভয় পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত দুই দিনের মিলনমেলা শেষ হলো গতকাল রবিবার।

অনুষ্ঠানের শেষদিনে স্মারক বক্তা ছিলেন কথাসাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন। তিনি বলেছেন, ‘মানুষ আলোকিত হয় বই পড়ে। কিন্তু আমাদের মধ্যে একটি প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে গোল্ডেন জিপিএ ৫ পাওয়া নিয়ে। আমি সেই গোল্ডেন জিপিএ ৫ পাওয়া ছাত্র-ছাত্রী চাই না, যাদের ৩৬ হাজার পরীক্ষা দিয়ে মাত্র দুজন ইংরেজিতে পাস করবে। এই জিপিএর কোনো অর্থ নেই। এই জিপিএর আমাদের দরকার নেই। আমরা চাই শিক্ষিত সন্তান, আমরা চাই মানুষের মতো মানুষ।’

বর্তমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে কালের কণ্ঠ সম্পাদক বলেন, ‘মানুষের মধ্যে মানুষ ও পশু দুটি প্রাণী বাস করে। আমাদের দেশের চারদিকে আমরা অনেক মানুষের মতো পশু দেখি। এখন আমাদের দেশ পশুত্বে ভরে গেছে। আমি মাদকাসক্ত দেখি, খুনি দেখি, চোর দেখি। দুর্নীতিবাজে দেশ ভরে গেছে। আমরা দুর্নীতিবাজ চাই না, আমরা চাই মানুষের মতো মানুষ। তোমরা সেই রকম মানুষ হয়। পশু হইও না।’ তিনি আরো বলেন, ‘মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুরে জন্মেছিলেন বুদ্ধদেব বসু, মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়, দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস, সরোজিনী নাইডু, বিজ্ঞানী স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়, অতীশ দীপঙ্করের মতো বড় বড় সব মনীষী। এ রকম অনেক বড় বড় লেখক, রাজনীতিবিদ ও শিল্পী জন্মেছিলেন এই বিক্রমপুরে। কিন্তু দিনে দিনে আমরা সেই মানুষগুলোর কথা ভুলে গেছি।’

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সিরাজদিখান উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ঐতিহ্যবাহী এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির শতবর্ষ উদ্যাপনের আয়োজন ছিল সুন্দর ও আবেগময়। শতবর্ষের এই মিলনমেলায় বর্তমান শিক্ষার্থীরা আগত অতিথিদের বক্তব্য থেকে অনেক কিছু শিখতে পেরেছে। মাদক, বাল্যবিয়ে ও কিভাবে সমাজের উঁচুমানের মানুষ হওয়া যায়, তার দৃষ্টান্ত তারা পেয়েছে এখান থেকে।

শতবর্ষ পূর্তির অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের কৃতী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। অতিথি ও মেধাবী প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট ও স্মারক উপহার দেওয়া হয়। এ ছাড়া রক্তদান কর্মসূচিরও আয়োজন করা হয়।



মন্তব্য