kalerkantho


রাজশাহীতে মানবেতর জীবন পাঁচ শতাধিক শিক্ষকের

রাজশাহী অফিস   

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



রাজশাহী বিভাগের পাঁচ শতাধিক কলেজ শিক্ষক দীর্ঘদিন ধরে বেতন-ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। ডিগ্রি (স্নাতক) পর্যায়ে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে কলেজ থেকে শতভাগ ভাতা পাওয়ার আশ্বাসে চাকরিতে যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু এখন বেতন-ভাতা কোনোটাই পাচ্ছেন না।

চাকরি নেওয়ার সময়ও কলেজ কর্তৃপক্ষকে দিতে হয়েছে মোটা অঙ্কের টাকা। কেউ কেউ ধারদেনা করে বা সহায়-সম্বল বিক্রি করে তখন টাকা দিয়েছেন কলেজ কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু এখন বেতন-ভাতা কোনোটিই না পেয়ে সংসার চালানোই দায় হয়ে পড়েছে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে যোগদানকারীদের।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ডিগ্রি (স্নাতক) পর্যায়ে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় পাঁচ শতাধিক শিক্ষক রয়েছেন। তাঁদের কেউ কেউ তিন-চার বছর ধরে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে চাকরি করছেন। কিন্তু এত দিনেও পদটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না তাঁরা।

রাজশাহীর দুর্গাপুরের একজন শিক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে জানান, তিনি তৃতীয় শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ২০১৫ সালে। এ জন্য তাঁকে কলেজের সভাপতি, অধ্যক্ষসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের ১০ লাখ টাকা দিতে হয়েছে। কিন্তু নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে তাঁকে বিনা বেতনে চাকরি করতে হচ্ছে। নিয়োগ দেওয়ার সময় কলেজ থেকে শতভাগ ভাতা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেটিও এখন আর দেওয়া হচ্ছে না।



মন্তব্য