kalerkantho


অন্য ৫ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবারেই

নিজস্ব প্রতিবেদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আগামী শুক্রবার যথাযথ সময়েই ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি (বিএসসি) সচিবালয়। তবে ওই নিয়োগ পরীক্ষায় সোনালী, রূপালী ও জনতা ব্যাংকে নিয়োগের কার্যক্রম স্থগিত থাকবে। বাকি পাঁচটি ব্যাংকের নিয়োগ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।

বিএসসির সদস্যসচিব মো. মোশারফ হোসেন খান গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘মহামান্য আদালতের রায়কে সম্মান দেখিয়ে আমরা ওই তিনটি ব্যাংকের নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত রেখে পরীক্ষা গ্রহণের সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করছি। পরীক্ষা যথাসময়েই হবে। অর্থাৎ শুক্রবারেই হবে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড থেকে শুরু করে যত ধরনের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে সব কিছুই আগের মতো থাকবে। কোনো পরিবর্তন নেই। আমরা একটি সার্কুলার দিয়ে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছি আমাদের ওয়েবসাইটে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা উকিল নিয়োগ করেছি। আদালত থেকে পরবর্তী নির্দেশনা পেলে আমরা ওই তিনটি ব্যাংকের নিয়োগ প্রক্রিয়া আবার শুরু করব। এখন বাকি পাঁচটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা নিতে কোনো অসুবিধা নেই।’

এদিকে তিন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত হওয়ার পর বাকি পাঁচ ব্যাংকের পরীক্ষাও স্থগিত করে সমন্বিতভাবে আটটি ব্যাংকের পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে গতকাল আবারও মানববন্ধন করেছে একদল চাকরি প্রত্যাশী। গত সোমবারও তারা একই দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে মানববন্ধন করে।

গতকাল দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) রাজু ভাস্কর্য পাদদেশে মানববন্ধন করে তারা দাবি জানায়। এর আগে সকালে শাহবাগের জাতীয় গণগ্রন্থাগার থেকে কয়েক শ শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে আসেন। সেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মিলিত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ১১টার দিকে মানববন্ধন করে। পরে দুপুর ১২টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে আবার মানববন্ধন করে তারা। এ সময় তারা দাবির পক্ষে স্লোগান দেয়। এ ছাড়া ‘দাবি মোদের একটাই সমন্বিত পরীক্ষা চাই’, ‘এক দফা এক দাবি, সমন্বিত পরীক্ষা নিতে হবে’, ‘সমন্বিত পরীক্ষা চাই’—এসব স্লোগান-সংবলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে তারা।

গত রবিবার রাষ্ট্রায়ত্ত তিন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত রাখার আদেশ দেন হাইকোর্ট। আগামী শুক্রবার ওই তিনটি ব্যাংকসহ মোট আটটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ পরীক্ষা সমন্বিতভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। অন্য পাঁচটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব), বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশন ও ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন।



মন্তব্য