kalerkantho


‘গণতন্ত্র রক্ষা দিবসে’র সমাবেশ

ঐক্যের আহ্বান চট্টগ্রাম আ. লীগ নেতাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের চতুর্থ বর্ষপূর্তিতে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রেখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ নেতারা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রামে ‘গণতন্ত্র ও সংবিধান রক্ষা দিবসে আনন্দ সম্মিলন ও সমাবেশ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতারা এই আহ্বান জানান। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে মহানগর আওয়ামী লীগ এ সমাবেশের আয়োজন করে।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আগামী নির্বাচনেও যাতে আওয়ামী লীগ সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রেখে সরকারের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে পারে, সে জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির যাতে নির্বাচন হতে না পারে, সে জন্য একটি রাজনৈতিক দল ‘গভীর ষড়যন্ত্র’ করেছিল। তারা বন্দুকের নলের মাধ্যমে রাতের অন্ধকারে ক্ষমতা দখল করে ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করে গণতন্ত্রের প্রতি তারা বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করেছিল। বিএনপি এবং এ দলের প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করেননি। তাঁরা জঙ্গিবাদের বীজ রোপণ করেছিলেন।

সমাবেশে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, একটি রাজনৈতিক অপশক্তি দেশের গণতন্ত্র ও উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত। এই রাজনৈতিক অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

নওফেল বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে এ অপশক্তিকে আমরা শুধু নির্বাচনে মোকাবেলা করব না, আমরা তাদের প্রতিহত করব, যাতে তারা বাংলাদেশের রাজনীতি থেকে বিদায় নিতে পারে।’

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি দেশবিরোধী অপতৎপরতা চালাচ্ছে। নির্বাচন সামনে রেখে ঐক্যবদ্ধ থেকে আমাদের ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তুলতে হবে।’

অন্যদের মধ্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, নঈম উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, শফিকুল ইসলাম ফারুক, চন্দন ধর প্রমুখ সমাবেশে বক্তব্য দেন।

আলোচনাসভা শেষে শহীদ মিনার থেকে শোভাযাত্রা বের হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।



মন্তব্য