kalerkantho


খুলনা-যশোর অঞ্চল

রাষ্ট্রায়ত্ত আট পাটকলে এবার ধর্মঘটের ডাক

খুলনা অফিস   

২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



খুলনা-যশোর অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত আটটি পাটকলে আজ মঙ্গলবার ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ পরিষদ। গতকাল সোমবার এসব মিলে টানা চতুর্থ দিনের মতো কর্মবিরতি পালন করে শ্রমিকরা। পরে সন্ধ্যায় যশোরের জেজেআই জুটমিলে শ্রমিকসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, খুলনা অঞ্চলের ৯টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের মধ্যে ক্রিসেন্ট জুটমিলে প্রায় পাঁচ হাজার, প্লাটিনামে সাড়ে চার হাজার, স্টারে সাড়ে চার হাজার, দৌলতপুর জুটমিলে সাড়ে ছয় শ, ইস্টার্নে দুই হাজার, আলীমে দেড় হাজার, জেজেআই জুটমিলে দুই হাজার ছয় শ এবং খালিশপুর জুটমিলে প্রায় সাড়ে চার হাজার শ্রমিক রয়েছে। এসব পাটকলের শ্রমিকদের চার থেকে ১২ সপ্তাহের মজুরি বকেয়া রয়েছে।

খালিশপুর প্লাটিনাম জুটমিলের সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা খলিলুর রহমান বলেন, সাধারণ শ্রমিকদের কর্মবিরতি চলছে। পাশাপাশি মঙ্গলবার দেশের সব পাটকলে আগের ঘোষণা অনুযায়ী ধর্মঘট পালিত হবে। পরে আরো কর্মসূচি দেওয়া হবে।

খলিলুর রহমান আরো বলেন, ‘বকেয়া মজুরি, মজুরি কমিশন, গ্রাচুইটি, পিএফের টাকা প্রদান, বদলি শ্রমিক ও কর্মচারীদের স্থায়ীকরণসহ ১১ দফা দাবি জানিয়েছি। আমরা এর বাস্তবায়ন দেখতে চাই।’

এদিকে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় জেজেআই মিলে পরিষদের খুলনা অঞ্চলের আহ্বায়ক আব্দুল হামিদ সরদারের সভাপতিত্বে শ্রমিকসভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তব্য দেন পরিষদের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক সরদার মোতাহার রহমান, সোহরাব হোসেন, হারুনুর রশিদ মল্লিক, এস এম জাকির হোসেন, আব্দুল মান্নান, আলাউদ্দিন, খলিলুর রহমান, মো. সাইফুল ইসলাম মিঠু, জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার সকালে আট সপ্তাহের মজুরির দাবিতে প্লাটিনাম জুটমিলের উৎপাদন বন্ধ করে দেয় শ্রমিকরা। পরে একে একে ক্রিসেন্ট, দৌলতপুর ও স্টার জুটমিলের শ্রমিকরা উৎপাদন বন্ধ রেখে বিক্ষোভ শুরু করে। এ খবর পেয়ে দুপুরে আটরা-গিলাতলা শিল্পাঞ্চলের ইস্টার্ন ও যশোরের অভয়নগরের জেজেআই জুটমিলের উৎপাদন বন্ধ করে দেয় শ্রমিকরা। ওই দিনই সন্ধ্যায় আলীম জুটমিলের উৎপাদনও বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে গত শনিবার খালিশপুর জুটমিলের উৎপাদন বন্ধ করে দেয় শ্রমিকরা।

 



মন্তব্য