kalerkantho


দুই জেলায় ছয় জঙ্গি সদস্য গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



র‍্যাব-১১ শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে তিন জঙ্গিকে। ঢাকার সবুজবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা এসব জঙ্গিরা নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য। তাদের দুজন প্রশিক্ষক হিসেবেও কাজ করেছে। জঙ্গিবাদের বিভিন্ন বই, লিফলেট ও দুই লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার হয়েছে তাদের হেফাজত থেকে। একই রাতে র‍্যাবের পৃথক টিম চাঁপাইনবাবগঞ্জে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করেছে জেএমবির তিন সদস্যকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, র‍্যাব-১১-এর একটি টিম শনিবার রাতে ঢাকার সবুজবাগ থেকে গ্রেপ্তার করেছে আহমদ উল্যাহ পাটোয়ারী ওরফে ইমরান সানি শ্যামল (২১), জাবাল-ই-নুর সিয়াম ওরফে মুসাব (২৪) ও মুফতি হোসাইন আহমেদ ওরফে হোসেন বেলালকে (৩২)। আহমদ উল্যাহ পাটোয়ারী ২০০৮ সালে হাফেজ পাস করেছে। ২০১২ সালে মোবাইল ফোনে জসিম উদ্দিন রাহমানির ওয়াজ শুনে জঙ্গিবাদে আকৃষ্ট হয়। এরপর জসিম উদ্দিন রাহমানির মসজিদে যাতায়াত শুরু করলে সমমনাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়। পরের বছর সে আনসার আল ইসলামে (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) যোগদান করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সংগঠনের একাধিক গোপন বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা জানিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্লগারদের অনুসরণ করে বিভিন্ন লেখার বিষয় জঙ্গি নেতাদের অবহিত করত সে। একপর্যায়ে ঢাকা উত্তর অঞ্চলের নিয়ন্ত্রক ও প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে।

আরেক আসামি জাবাল-ই-নুর সিয়াম যোগ দিয়েছিল হিযবুত তাহ্রীরে। ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সেখানে থাকার পর যোগ দেয় আনসার আল ইসলামে। সংগঠনে প্রতি মাসে সে তিন হাজার টাকা করে ইয়ানত দিয়ে আসছিল। আর মুফতি হোসাইন আহমেদ বেলাল ২০১৪ সালে সবুজবাগে বায়তুন নুর জামে মসজিদে ইমামতি শুরু করে। এর পাশাপাশি আনসার আল ইসলামের দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করছিল।  প্রশিক্ষক হিসেবেও সে কাজ করেছে।

ওদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে জিহাদি বইসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে জেএমবির তিন সদস্যকে। তারা হলো শিবগঞ্জ ধোবড়া এলাকার আজিবুল হক (৫৩), সাইফুল ইসলাম (৩৫) ও মোবারকপুর লক্ষ্মীপুর এলাকার তাজামুল হক (৪৬)।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‍্যাব ক্যাম্পের কম্পানি কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার মোহাম্মদ সাঈদ আব্দুল্লাহ আল-মুরাদ জানান, সদর উপজেলার চকলামপুর কামারদহ এলাকার একটি আমবাগানে ৮-৯ জন জেএমবি সদস্য বৈঠক করছে বলে সংবাদ ছিল। র‍্যাবের একটি দল শনিবার রাত ৩টার দিকে সেখানে অভিযান চালায়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে আজিবুল হক ও সাইফুল ইসলাম।

 



মন্তব্য