kalerkantho


খুলনা শিশু হাসপাতাল

৮০ লাখ টাকার টেন্ডারবাজির অভিযোগ

খুলনা অফিস   

২৪ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত খুলনা শিশু হাসপাতালের প্রায় ৮০ লাখ টাকার দরপত্র ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ঠিকাদাররা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ অনুযায়ী, গতকাল বৃহস্পতিবার দরপত্র দাখিলের শেষ দিন আওয়ামী লীগের কর্মীদের বাধায় সাধারণ ঠিকাদাররা দরপত্র দাখিল করতে পারেননি।

ঢাকা থেকে এক ঠিকাদার দরপত্র দাখিল করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শিশু হাসপাতাল সূত্র ও একাধিক ঠিকাদার জানান, গত ২২ অক্টোবর পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ‘ক’ শ্রেণিতে এমএসআর (মেডিক্যাল ইক্যুইপমেন্ট, সার্জিক্যাল, কেমিক্যাল ও অন্যান্য) এবং ‘খ’ শ্রেণিতে ওষুধ এবং শিশুখাদ্য ক্রয়ে উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করেন শিশু হাসপাতাল পরিচালনা বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম। গত ১৫ নভেম্বর দরপত্র বিক্রির শেষ ও ১৬ নভেম্বর দরপত্র দাখিল ও খোলার দিন ধার্য থাকলেও পরে সময় বাড়নো হয়। গতকাল ছিল দরপত্র দাখিল ও খোলার দিন। ‘ক’ শ্রেণিতে অনুমানিক ৬৫ লাখ টাকা এবং ‘খ’ শ্রেণিতে আনুমানিক ২০ লাখ টাকা (বরাদ্দ) ছিল। গতকাল সকাল থেকেই শিশু হাসপাতালের প্রশাসনিক ভবনের আশপাশে ক্ষমতাসীন দলের কর্মীরা সাধারণ ঠিকাদারদের দরপত্র দাখিলে বাধা দেন। সকাল ১০টার দিকে ঢাকা থেকে যাওয়া এক ঠিকাদার দরপত্র দাখিল করতে গেলে তাঁকে লাঞ্ছিত করা হয়। সিন্ডিকেটের ঠিকাদাররাই কেবল দরপত্র দাখিল করেছেন বলে অভিযোগ সাধারণ ঠিকাদারদের।

হাসপাতাল পরিচালনা বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অনেকেই দরপত্র জমা দেওয়ার সময় বাধা পাওয়ার অভিযোগ করেছেন।

কিন্তু কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা বলতে পারছি না। ’


মন্তব্য