kalerkantho


লিট ফেস্ট

‘অনুবাদের বিকল্প নেই’

নওশাদ জামিল   

১৮ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



কোথাও দেশ-বিদেশের লেখকরা আড্ডা দিচ্ছেন, কোথাও বা মেতে উঠছেন মনোমুগ্ধকর আলোচনায়। সাহিত্য, চলচ্চিত্র, সংগীত, চিত্রকলাসহ শিল্প-সাহিত্যের নানা মাধ্যমের মানুষের আনাগোনা এসব আড্ডা-আলোচনায়।

গতকাল শুক্রবার আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসব ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে বাংলা একাডেমির চৌহদ্দিজুড়ে ছিল এমনই সব দৃশ্য।

ছুটির দিন থাকায় সাহিত্যামোদীদের ভিড়ও ছিল ব্যাপক। বাংলা একাডেমির বিভিন্ন মিলনায়তন ও কক্ষসহ প্রায় ৯টি ভেন্যুতে বিশ্বসাহিত্যের আলোচনায় মেতেছিলেন বিভিন্ন দেশের সাহিত্যের দিকপালরা। পাশাপাশি ছিল নানা সাংস্কৃতিক আয়োজন।

কবি অ্যাডোনিসের কবিতা পাঠ, অস্কারজয়ী অভিনেত্রী টিন্ডা সুইন্টনের আলোচনা, ম্যান বুকার জয়ী নাইজেরিয়ার বেন অকরির সাহিত্যালোচনা ও দেশের নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের চলচ্চিত্র জীবনের গল্প ইত্যাদি আলোকিত করে তোলে লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনের আসর।

গতকাল সকাল ৯টায় শুরু হয় দ্বিতীয় দিনের আয়োজন। শেষ হয় যথারীতি রাত ৮টায়। এদিন ৩৮টি অধিবেশন হয়েছে। প্রতিটি অধিবেশনে দর্শক-শ্রোতার উপস্থিতি ছিল প্রথম দিনের তুলনায় বেশি।

দ্বিতীয় দিনে গতকাল অন্যতম আকর্ষণ ছিল উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে সিরিয়ান বংশোদ্ভূত কবি অ্যাডোনিসের একক কবিতা পাঠ। অধিবেশনটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক সাদাফ সায্্।

অনুবাদের বিকল্প নেই : বাংলা সাহিত্যকে বিশ্বসাহিত্যের অঙ্গনে পৌঁছে দিতে ভালো মানের ইংরেজি অনুবাদ থাকা জরুরি। আবার বিশ্বসাহিত্যকে আমাদের ভালোভাবে জানতে হলেও ইংরেজি সাহিত্যকে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আমরা এখনো পিছিয়ে রয়েছি। কিন্তু বিশ্বসাহিত্য অঙ্গনে বাংলা সাহিত্যকে তুলে ধরতে ভালো অনুবাদের কোনো বিকল্প নেই। বাংলা একাডেমির ভাস্কর নভেরা এক্সিবিশন হলে অনুষ্ঠিত হলো ‘ক্রিটিক্যাল মুসলিম : লঞ্চ অব বাংলাদেশ ইস্যু’ শীর্ষক এক অধিবেশনে বক্তারা এসব কথা বলেন।

বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি অনুবাদ ও ইংরেজি সাহিত্যের বাংলা অনুবাদের ক্ষেত্রে বর্তমান অবস্থা, সীমাবদ্ধতা এবং এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে বক্তারা আলোচনা করেন। সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এই অধিবেশন হয়। আমের হোসেনের উপস্থাপনায় অংশ নেন লেখক ও অনুবাদক কায়সার হক, মারিয়া চৌধুরী, রাজিব রহমান ও সরবরি আহম্মেদ। কায়সার হক লালনগীতির একটি অনুবাদ পড়ে শোনান। এরপর তিনি ইংরেজি ভাষায় বাংলা সাহিত্য অনুবাদ, অনুবাদের সমস্যা, অনুবাদের মান ও বিশ্বসাহিত্যে বাংলা সাহিত্যকে তুলে ধরার বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ইংরেজি সাহিত্যের বাংলা অনুবাদের মান নিয়ে যেমন পাঠকদের প্রশ্ন রয়েছে, তেমনি বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি ভাষায় অনুবাদের মান নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে।

মা ও মেয়ের গল্প : সকালে একাডেমির বর্ধমান হাউসসংলগ্ন লনে অনুষ্ঠিত হয় ‘মা ও মেয়ে’ শীর্ষক অধিবেশন। এ বিষয়ে কথা বলেছেন ভারতের খ্যাতনামা অভিনেত্রী, লেখক ও শিশু অধিকারকর্মী নন্দনা সেন। তাঁর আরেক পরিচয় হচ্ছে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের মেয়ে। তাঁর মা হচ্ছেন ভারতীয় কবি ও লেখক নবনীতা দেবসেন। প্রাণবন্ত এ আলোচনা পর্বের সঞ্চালনা করেন দেশের নামি অভিনয়শিল্পী সারা যাকের।

হুমায়ূন আহমেদের চলচ্চিত্র ও অন্যান্য কথা : বাংলা সাহিত্যে হুমায়ূন আহমেদ ছিলেন অন্যতম কথক। তিনি সাহিত্যে যেমন ছিলেন পটু, ঠিক তেমনি পারদর্শী ছিলেন চলচ্চিত্রে সাধারণ গল্পকে ভিন্ন মাত্রা দেওয়ার ক্ষেত্রেও। বাংলা একডেমির লনে অনুষ্ঠিত হুমায়ূন চলচ্চিত্র নিয়ে আলোচনায় এসব কথা বলেন বক্তারা।

চিত্রনায়ক রিয়াজের সঞ্চালনায় হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন, চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমান ও সিনেম্যাটোগ্রাফার মাহফুজুর রহমান খান আলোচনায় অংশ নেন।

অন্যান্য অধিবেশন : দ্বিতীয় দিনের আসরে আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে ‘ফ্রম জানাদু টু নাইন লাইফস’ শীর্ষক অধিবেশনে আলোচনা করেন ব্রিটিশ ইতিহাসবিদ উইলিয়াম ডালরিম্পল। কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে ‘অক্ষর ও অঙ্ক’ ও ‘এন অ্যান্ড দ্য বিগ হুম’ শীর্ষক অধিবেশন হয়। দুপুর সাড়ে ১২টায় আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে হয় ‘পারফরম্যান্স অ্যাজ অথারশিপ’ শীর্ষক অধিবেশন। আলোচনা করেন অস্কারজয়ী অভিনেত্রী টিল্ডা সুইন্টন। দুপুর ২টায় কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে ‘মেমোরিস অব এ পাবলিশার্স’ শীর্ষক অধিবেশনে আলোচনা করেন বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান পেঙ্গুইন র‌্যান্ডম হাউসের সদ্য সাবেক প্রধান জন ম্যাকিনসন। উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে হয় ‘মিটু’ শীর্ষক অধিবেশন। ভাস্কর নভেরা প্রদর্শনীকক্ষে বসে ‘সম্পর্কের এপার ওপার’ শীর্ষক অধিবেশন। বিকেল সোয়া ৩টায় আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে ‘দ্য ফেমিসেড রোড’ শীর্ষক অধিবেশনে জেরি পিন্টোর সঞ্চালনায় আলোচনা করেন ম্যান বুকারজয়ী নাইরেজিয়ান কথাসাহিত্যিক বেন অকরি। বিকেল সাড়ে ৪টায় আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে ছিল ‘হারস্টোরিজ : হোমগ্রো সুপারগার্লস’ শীর্ষক অধিবেশন। এ সময় ‘হারস্টোরিজ : হোমগ্রো সুপারগার্লস’ শিরোনামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

এ ছাড়া নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠিত মেয়েদের লাঠি খেলায় অংশ নেয় বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ লাঠিয়াল দল। নাটক মঞ্চায়ন করে নাটকের দল বটতলা। বাচ্চাদের গল্প শোনান কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক। মুস্তফা মনোয়ারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয় পুতুল নাচ, অজিত রায় সরকার ও নির্মল চন্দ্র রায় সরকার ও তাদের দল পরিবেশন করে কবিগান।


মন্তব্য