kalerkantho


যশোর বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্ত্রসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর   

১১ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) ছাত্রলীগের এক নেতা অস্ত্রসহ ধরা পড়েছেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে ক্যাম্পাস থেকে তাঁকে আটক করে পুলিশ।

তবে তাঁকে আটক করার বিষয়টি কর্তৃপক্ষ প্রথমে স্বীকার করতে চায়নি।

আটক ছাত্র হোসাইন ইছাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র ছাত্রাবাস শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিজিক্যাল সায়েন্স অ্যান্ড স্পোর্টস এডুকেশনের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, গতকাল বিকেল ৩টার দিকে হোসাইন ইছাদ ও তাঁর কয়েকজন সহযোগী অস্ত্রসহ ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবনের সামনে ঘোরাফেরা করছিলেন। এ সময় অদূরে থাকা পুলিশ তাঁদের চ্যালেঞ্জ করে। কয়েকজনের শরীর তল্লাশি করে পুলিশ ইছাদের কাছে অস্ত্র, গুলি ও ম্যাগাজিন পায়। তখন তাঁকে আটক করে অন্যদের ছেড়ে দেয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে সাজিয়ালি পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আসাদুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে এখন কোনো কথা বলব না। ’ পরে যোগাযোগ করা হলেও তিনি বারবার ফোন কেটে দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মিজানুর রহমানও বলেন, ‘এ বিষয়ে পরে কথা বলব।

’ তবে বিকেল সোয়া ৫টার দিকে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার ঘটনা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ৭ পয়েন্ট ৬২ বোরের একটি পিস্তল, চারটি গুলি, একটি ম্যাগাজিনসহ ইছাদ নামের এক ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। সে এখন পুলিশ হেফাজতে আছে। ’

অন্যদিকে, গতকাল শুক্রবার বিকেলে যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়া এলাকায় বাড়িতে ঢুকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে রবিউল ইসলাম (১৯) নামের এক যুবককে গুরুতর জখম করেছে। তাঁকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতের বাবা নুরুল আমিন ভূইয়া জানিয়েছেন, রবিউল শহরের একটি মোটরপার্টস দোকানের কর্মচারী। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে একই এলাকার চার-পাঁচজন দুর্বৃত্ত তাঁদের ভাড়া বাড়িতে ঢুকে রবিউলকে মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে দুর্বৃত্তরা পিস্তল দিয়ে তার বুকের বাম পাশে এক রাউন্ড গুলি করে চলে যায়। তবে কী কারণে রবিউলকে মারধর ও গুলি করা হয়েছে তা তিনি জানাতে পারেননি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন রবিউলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।


মন্তব্য