kalerkantho


না.গঞ্জে উলামাদের প্রতিবাদ সমাবেশ

ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে রাব্বীর গ্রেপ্তার দাবি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

২২ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০



ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন আলেম-উলামারা। জেলা শহরের ডিআইটি এলাকায় গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা আয়োজিত এই সমাবেশে আলেম-উলামারা বিসমিল্লাহ নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ এনে জেলা তেল-গ্যাস ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক রফিউর রাব্বীকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তাঁরা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ইসলাম ধর্মের অবমাননাকারীদের কোনো রকম ছাড় দেওয়া হবে না।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সমাবেশে যোগ দিয়ে আলেম-উলামাদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন। সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমির ও ডিআইটি মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল আউয়াল। সভাপতির বক্তব্যে তিনি প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, ‘শেখ হাসিনা একজন সরকারপ্রধান হয়ে আলেমদের গণভবনে ডেকে নিয়ে যে সম্মান দিয়েছেন তা বিরল। তাঁর ভেতর আল্লাহ ও রাসূলের মহব্বত রয়েছে। তিনি আলেমদের নেতা শফী হুজুরের সামনে এসে দোয়া চেয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ভারতবর্ষ আন্দোলন, দেওবন্দ ও দেশের মুক্তিযুদ্ধে আলেমদের অবদান স্বীকার করেছেন। এটা আলেমদের জন্য অনেক সম্মানের। কিন্তু হুজুরদের সম্মান দেওয়াটা কিছু নাস্তিকের দল সহ্য করতে পারছে না। তারা বলে বেড়াচ্ছে, আমরা নাকি আওয়ামী লীগের দালাল হয়ে গেছি। বাস্তবতা হলো, যারা আজ এ নিয়ে কথা বলছে তারাই সরকারের পদলেহন করেছে। সেই ইতিহাস আমাদের জানা আছে। আমরা কোনো আওয়ামী লীগ, বিএনপি বা জাতীয় পার্টি করি না।’

মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেন, ‘আজকে এখানে সর্বস্তরের ওলামারা উপস্থিত হয়েছেন। নারায়ণগঞ্জের নাস্তিক রফিউর রাব্বী বিসমিল্লাহ নিয়ে কটূক্তি করেছেন। রফিউর রাব্বীকে বলতে চাই, আপনার এই কটূক্তিতে বিসমিল্লাহর কিছু যায় আসে না। কিন্তু ধর্মপ্রাণ মুসলমান হিসেবে আমাদের দায়িত্ব এর প্রতিবাদ করা। আইনে রয়েছে, কেউ সংবিধানে থাকা বিধি নিয়ে কটূক্তি করলে সেটা ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রবিরোধী মামলা হয়। ইতিমধ্যে আমাদের পক্ষে একজন রফিউর রাব্বীর বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে আদালতে মামলা করেছেন। এমন মামলা প্রয়োজনে আরো হবে।’

জেলা হেফাজতের আমির কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আপনি রফিউর রাব্বী ইসলামে থাকা বিসমিল্লাহ নিয়ে কটূক্তি করবেন আর সুন্দর করে ঘুরে বেড়াবেন এটা নারায়ণগঞ্জের মাটিতে হবে না। নারায়ণগঞ্জের আলেমরা ইসলাম ধর্ম অবমাননাকারীকে ছাড় দেবে না।’

সমাবেশের একপর্যায়ে যোগ দিয়ে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি কোনো রাব্বীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে আসিনি। এসেছি একজন মুসলমানের পুত্র হিসেবে। বিসমিল্লাহ নিয়ে কটূক্তিকারী সে যে-ই হোক তার বিরুদ্ধে কেউ মাঠে না নামলেও আমি সবার আগে নামব। আগে দেখব প্রশাসন কী করে। ইসলাম প্রশ্নে আমার কোনো আপস নেই।’



মন্তব্য