kalerkantho


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

জঙ্গি সন্দেহে তিন ছাত্রকে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২১ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০



জঙ্গি সন্দেহে তিন ছাত্রকে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

জঙ্গিবাদে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন ছাত্রকে পুলিশে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে।

ছাত্ররা হলেন মার্কেটিং বিভাগের জুবায়ের হোসেন, বাড়ি নরসিংদী; প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের মাকসুদুল হক, বাড়ি কিশোরগঞ্জ এবং ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের আল তৌফিক, বাড়ি পাবনা। তাঁরা সবাই প্রথম বর্ষের ছাত্র।

বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে জুবায়ের হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘তারা যে কাজগুলো করে সেগুলো ঠিক না বেঠিক তা বোঝার জন্য আমি তাদের পোস্টগুলো পড়তাম। কোরআন হাদিস থেকে সেখানে লেখা থাকত। তাদের লেখা ভালো লাগত বলে পড়তাম। ’ তিনি বলেন, ‘আমি শুধু তাদের পোস্টগুলো পড়তাম। তাদের সঙ্গে আমার কখনো যোগাযোগ হয়নি। ’

জুবায়েরের ফোন থেকে তাঁর ফেসবুক প্রোফাইল ‘মধ্যরাতের অশ্বারোহী’তে গিয়ে দেখা গেছে, তিনি আইএসের বিভিন্ন পোস্ট শেয়ার করেছেন। ওই ফোনে আইএসের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ও যুদ্ধের ভিডিও পাওয়া গেছে।

ওই সময় তাঁর ফোনে বার্তা পাঠান ‘শেষ স্টেশন কবরস্থান’ নামের আইডি পরিচালনাকারী মাকসুদুল হক। তিনি জিজ্ঞাসা করেন, ছাত্রলীগ তাঁকে (জুবায়েরকে) কিছু করেছে কি না? বার্তা পড়ে বিনোদপুর থেকে তাঁকে ধরে আনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

ওই সময় পাশ দিয়ে দ্রুত হেঁটে যাচ্ছিলেন তৌফিক। আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাঁকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তিনজনকেই পুলিশে দেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বলেন, ‘ফেসবুকে আইএস সম্পর্কে বিভিন্ন লেখা শেয়ার দেওয়ায় জুবায়ের হোসেনকে চার-পাঁচ দিন ধরে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। আজ দুপুর ২টার দিকে আমরা তাকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করি। তার ফোনে আইএসের যুদ্ধের ভিডিও এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে তৈরি করা গান পাওয়া গেছে। ’ তাঁরা বলেন, পরে মাকসুদুল হককে ধরে আনা হয়। আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তৌফিককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তিনজনকেই পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

মতিহার থানার ওসি হুমায়ুন কবীর জানান, বিকেল ৪টার দিকে ছাত্রলীগ জঙ্গি-সংশ্লিষ্টতার সন্দেহে তিনজনকে তাঁদের হাতে তুলে দিয়েছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।


মন্তব্য