kalerkantho


আ. লীগ নেতাদের ফখরুল

বিএনপিকে কী করে নির্বাচনে আনবেন সেই চেষ্টা করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০



বিএনপিকে কী করে নির্বাচনে আনবেন সেই চেষ্টা করুন

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ না নিলে নিবন্ধন বাতিল হবে এমন ভয় দেখিয়ে লাভ হবে না। বিএনপি দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল, এই দল ছাড়া কোনো নির্বাচন হবে না, হতে পারে না। তাই আওয়ামী লীগ নেতাদের বলব, বিএনপিকে কী করে নির্বাচনে আনবেন সেই চেষ্টা করুন। ’

আগামী নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ করা-না করা সম্পর্কে আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের বক্তব্যের জবাবে মির্জা ফখরুল গতকাল বৃহস্পতিবার এক আলোচনাসভায় এসব কথা বলেন। বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলীসহ অন্যান্য নেতাকর্মী গুম-খুনের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এই আলোচনার আয়োজন করা হয়।

আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ করে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘২০১৪ সালে কী নির্বাচন করেছেন? কোনো বিরোধী দল আপনাদের নির্বাচনে অংশ নেয়নি। ফলে ওই নির্বাচন দেশের মানুষের কাছে ও আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। খুব পরিষ্কার করেই বলা হয়, ইটস আ ফ্রড ইলেকশন, এটা গ্রহণযোগ্য নির্বাচন নয়। ’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনমুখী লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি। আমরা নির্বাচন চাই। নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতায় যাওয়ার কথা আমরা কখনো চিন্তা করি না। কিন্তু সেই নির্বাচনে যাওয়ার জন্য একটা পথ তো লাগবে। ’ সরকারকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘প্রতিটি পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে ক্ষমতায় বসে থেকে কলকবজা নাড়বেন আর বলবেন নির্বাচনে যাও, তা তো হতে পারে না। আমরা স্পষ্টভাবে বলছি, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। অন্যথায় এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। ’

ফখরুল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী প্রায়ই বিদেশ সফরে যান। নির্বিঘ্নে যান এবং শান্তিতে ঘোরাঘুরি করে আসেন। এর মধ্যে তিনি ভুটানে গিয়েছেন প্রতিবন্ধীদের আন্তর্জাতিক সম্মেলন উদ্বোধন করতে। অথচ নিজ দেশের রাজনীতিকে তিনি পুরোপুরি প্রতিবন্ধী করে রেখেছেন; মানুষকে সম্পূর্ণভাবে পঙ্গু করে রেখে দিয়েছেন। সেদিকে তাঁর কোনো খেয়াল নেই। ’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ক্ষমতায় টিকে থাকতে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নামে অসংখ্য মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। অত্যাচার-নির্যাতন চালানো হচ্ছে। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ৮০টির মতো মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। তারা অসংখ্য মানুষকে গুম-খুন করে, নির্যাতন করে, গ্রেপ্তার করে মানুষকে স্তব্ধ করে রাখতে চায়। ’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে সম্পূর্ণ দেউলিয়া হয়ে গেছে। রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলার শক্তি নেই বলে মিথ্যা মামলা দিয়ে তারা বিরুদ্ধ মত রুখতে চায়। ভবিষ্যতে তাদেরকে এর জবাব দিতে হবে। শুধু ইলিয়াস আলী নয়, আমাদের পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করে ফেলা হয়েছে। এই অপরাধ ক্ষমা করার নয়। বাংলাদেশের মানুষের ওপর গত আট-নয় বছর ধরে যে স্টিমরোলার চালানো হচ্ছে তা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। ’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহানের সভাপতিত্বে ও সহপ্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম আলিমের পরিচালনায় আলোচনাসভায় কেন্দ্রীয় নেতা শামসুজ্জামান দুদু, হাবিবুর রহমান হাবিব, আতাউর রহমান ঢালী, মজিবর রহমান সরোয়ার, খায়রুল কবীর খোকন, হাবিবউন নবী খান সোহেল, ড. আসাদুজ্জামান রিপন, শামা ওবায়েদ, কামরুজ্জামান রতন, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, মীর শরাফত আলী সপু ও আবদুস সালাম আজাদ বক্তব্য দেন।


মন্তব্য