kalerkantho


যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ফের বাংলাদেশি পণ্যের কোটামুক্ত সুবিধা দাবি

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের শুল্ক ও কোটামুক্ত (ডিএফকিউএফ) বাণিজ্য সুবিধা চালুর দাবি জানিয়ে বারবার ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিক, কূটনীতিকসহ উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে জোর তদবির চালিয়েও বারবার ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ। এই অবস্থায় আবারও সেই সুবিধা দাবি করা হয়েছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে।

গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন ওয়াশিংটনে রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান ও বাণিজ্যবিষয়ক হাউস ওয়েজ অ্যান্ড মিলস সাবকমিটির চেয়ারম্যান দাভ রিচহাটের সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশি পণ্যের শুল্ক ও কোটামুক্ত (ডিএফকিউএফ) বাণিজ্য সুবিধা চালুর দাবি জানিয়েছেন। স্বল্পোন্নত (এলডিসি) দেশগুলোকে যে ধরনের সুবিধা দেয় বৃহৎ দেশটি, সে ধরনের সুবিধাই প্রত্যাশা করা হয়েছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে।

মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি বাংলাদেশকে ডিএফকিউএফ সুবিধা দেয়, তাহলে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আরো পণ্য রপ্তানিতে সক্ষম হবে। এতে নারীর আরো ক্ষমতায়ন বাড়বে এবং চরমপন্থা দমনে বাংলাদেশ আরো সক্ষমতা অর্জন করবে।

বৈঠককালে জিয়াউদ্দিন কংগ্রেসম্যানকে অবহিত করেন যে স্বল্পোন্নত ১৪টি দেশকে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডিএফকিউএফ সুবিধা বঞ্চিত করায় বৈষম্যের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে ৪৮টি স্বল্পোন্নত দেশের মধ্যে ৩৪টি দেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডিএফকিউএফ সুবিধা ভোগ করছে।

রাষ্ট্রদূত কংগ্রেসম্যানকে অবহিত করেন যে স্বল্পোন্নত ৪৮টি দেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নে ডিএফকিউএফ সুবিধা পাচ্ছে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, সুবিচার ও স্বচ্ছতার বিবেচনায় মানবাধিকার ও আইনের শাসনের ক্ষেত্রে চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র অবশ্যই সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করবে।

এ সময় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের বর্ণনা দেন তিনি।

বৈঠককালে দূতাবাসের মিনিস্টার (রাজনৈতিক) তৌফিক হাসান ও বাণিজ্যবিষয়ক সাবকমিটির ট্রেড কাউন্সিলর জোসুয়া উপস্থিত ছিলেন।

 


মন্তব্য