kalerkantho


খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলা

আপিল বিভাগে শুনানি এক সপ্তাহ মুলতবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নাইকো দুর্নীতি মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের বিরুদ্ধে দুদুকের করা আবেদনের ওপর আপিল বিভাগে শুনানি এক সপ্তাহ মুলতবি করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দুদকের করা সময় আবেদনে এ আদেশ দেওয়া হয়। আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এজে মোহাম্মদ আলী।

গত ৭ মার্চ হাইকোর্ট বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন। এ আদেশ স্থগিত করতে দুদক আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করে। গত ১২ মার্চ বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের চেম্বার আদালত কোনো স্থগিতাদেশ না দিয়ে ১৬ মার্চ আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য নির্ধারণ করেন। গতকাল নির্ধারিত দিনে দুদকের আইনজীবী সময়ের আবেদন দিয়ে বলেন, হাইকোর্টের আদেশের কপি এখনো পাওয়া যায়নি। তাই সময় প্রয়োজন।   

মামলাটি ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে অভিযোগ (চার্জ) গঠনের ওপর শুনানির পর্যায়ে রয়েছে।

এ ছাড়া নাইকো দুর্নীতির বিষয়টি ওয়াশিংটনের সালিসি আদালতে বিচারাধীন। ওই সালিসি আদালত গত বছর ১৯ জুলাই এক আদেশ দেন। আদেশে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের আদালতে মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখতে বাপেক্স ও পেট্রোবাংলাকে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। এ আদেশ সংযুক্ত করে খালেদা জিয়া গত বছর মামলার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে আবেদন করেন। ওই আদালত গত বছর ১৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ করেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া গত ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে আবেদন করেন। এ আবেদনের ওপর শুনানি শেষে গত ৭ মার্চ এক আদেশে হাইকোর্ট নিম্ন আদালতে চলমান মামলার বিচারকাজ স্থগিত করেন।

একই কারণ দেখিয়ে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের করা আবেদনে গত বছর ১ ডিসেম্বর মওদুদের ক্ষেত্রে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। আপিল বিভাগ গত বছর ১১ ডিসেম্বর ওই আদেশ বহাল রাখেন। তবে এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন। এ রুল এখন হাইকোর্টে বিচারাধীন।


মন্তব্য