kalerkantho


কুষ্টিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা হত্যায় তিনজনের মৃত্যুদণ্ড

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাবাকে যাবজ্জীবন

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



কুষ্টিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা হত্যায় তিনজনের মৃত্যুদণ্ড

কুষ্টিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার দায়ে তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছেলে হত্যা মামলায় বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

কুষ্টিয়া : দৌলতপুর উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা খবির উদ্দিনকে হত্যার দায়ে তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন আব্দুল হামিদ মালিথা, ছালাম শেখ ও জামিল মণ্ডল। রায় ঘোষণার সময় তাঁরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী জানান, ২০১২ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি রাতে দৌলতপুর উপজেলার গোয়ালগ্রাম মাঠে কৃষিকাজ করার সময় মুক্তিযোদ্ধা খবির উদ্দিনকে গলায় মাফলার পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন আসামিরা। এ ঘটনার এক দিন পর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী রোজিনা বেগম দৌলতপুর থানায় হত্যা মামলা করেন। এ মামলায় পুলিশ তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। তাঁদের মধ্যে ছালাম ও জামিল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

দীর্ঘদিন পর গতকাল উল্লিখিত রায় দেন বিচারক।    

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : ভোলাহাট উপজেলায় দেড় বছরের ছেলেকে হত্যার দায়ে বাবা আব্দুল হালিমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ এনামুল বারী আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত হালিম গোমস্তাপুর উপজেলার লক্ষ্মীনারায়ণপুরের নূহু মুন্সীর ছেলে। সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) জবদুল হক ও মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১১ সালের ৪ অক্টোবর হালিম ভোলাহাট উপজেলার নাজিরপুরে তাঁর শ্বশুরবাড়িতে যান এবং নিজের জমি বিক্রির জন্য স্ত্রী আয়েশা বেগম প্রীতির সঙ্গে আলোচনা করেন। স্ত্রী এতে আপত্তি জানালে তাঁদের মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে স্ত্রী ঘর থেকে বের হলে হালিম প্যান্টের বেল্ট দিয়ে শ্বাসরোধ করে দেড় বছরের ছেলে মোহাম্মদ রিফাতকে হত্যা করেন।


মন্তব্য