kalerkantho


নিয়ম লঙ্ঘন করে বদলির আদেশ, শিক্ষকদের ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



রাজশাহীর পবার সিলিন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একজন শিক্ষক অবসরে যাবেন আগামী ১১ এপ্রিল। কিন্তু তিন মাস আগেই ওই পদে আরেক শিক্ষককে যোগদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আদালতের নির্দেশ লঙ্ঘন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শিবগঞ্জে এক শিক্ষককে বদলি করা হয়েছে। নিয়ম লঙ্ঘন করে শিক্ষক বদলির আদেশ নিয়ে চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে স্থানীয় শিক্ষকদের মাঝে। তাঁরা বদলির আদেশ বাতিলেরও দাবি জানিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পবার সিলিন্দা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক অবসরে যাবেন আগামী ১১ এপ্রিল। কিন্তু গত ৫ জানুয়ারি প্রাথমিক শিক্ষা অধিপ্তরের উপসচিব গোপাল চন্দ্র দাস স্বাক্ষরিত এক আদেশে শিবগঞ্জ রাঘবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কামনুর নাহারকে বদলি করা হয় ওই স্কুলে। এরপর ওই আদেশের কপি পেয়ে গত ১৪ জানুয়ারি রাজশাহী বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিপ্তরের উপপরিচালক আবুল খায়ের অবলিম্বে আদেশটি কার্যকর করার জন্য আরেকটি নির্দেশনা জারি করেন। এ নির্দেশনার কপি পাঠানো হয় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে। তবে স্কুলটিতে কোনো শিক্ষকের পদ শূন্য না থাকায় এখনো যোগদান করাতে পারেনি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিপ্তরের একটি সূত্র জানায়, আগামী ১১ এপ্রিল সিলিন্দা স্কুলের একজন শিক্ষক অবসরে যাওয়ার পর চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থেকে বদলি হয়ে আসা শিক্ষক কামনুর নাহারকে যোগদান করানো হবে।

অবসরে যাওয়ার আগেই আরেক শিক্ষককে যোগদানের ওই আদেশটিও অবৈধ বলেও জানিয়েছেন রাজশাহী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা।  

সূত্র মতে, উচ্চ আদালতের দেওয়া সর্বশেষ নির্দেশ অনুযায়ী পুলভিত্তিক ও প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত এক উপজেলা থেকে আরেক উপজেলায় শিক্ষক বদলি করা যাবে না। কিন্তু সেই নির্দেশ অমান্য করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা থেকে রাজশাহী জেলায় বদলি করা হয়েছে কামনুর নাহারকে। এখানেও বড় ধরনের অনিয়ম করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে গতকাল বুধবার রাজশাহী আঞ্চলিক প্রাথমিক শিক্ষা অধিপ্তরের উপপরিচালক আবুল খায়েরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।


মন্তব্য