kalerkantho


চলন্ত বাসে ছিনতাই

তুরাগ পরিবহনের তিনজন জড়িত একজনের স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



রাজধানীর সায়েদাবাদের জনপথ মোড়ে চলন্ত বাসে ছিনতাইয়ের ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনের দাবি করেছে পুলিশ। তুরাগ পরিবহনের দুটি বাসের চালক এবং একজন কন্ডাক্টর ওই ঘটনা ঘটায় বলে পুলিশ জানতে পেরেছে।

পুলিশ ইতিমধ্যে কামাল রাঢ়ি (২৫) ও সিদ্দিক শিকদার (২৬) নামের দুই পরিবহন কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। ছিনতাইকাজে ব্যবহূত ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে।

গত সোমবার বাসচালাক সিদ্দিক ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দিতে সে দাবি করে, যে বাসে ঘটনা ঘটে ওই বাসের চালকসহ দুই বাসচালক ও একজন কন্ডাক্টর মিলে ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করে। এ জন্য তারা গভীর রাতে তুরাগ পরিবহনের একটি বাস নিয়ে রাজধানীতে ঘুরে বেড়ায়। দুজন মাছ ব্যবসায়ীকে পেয়ে তাদের ওপর হামলা করে টাকা লুট করে তারা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের ডেমরা জোনের সহকারী কমিশনার ইফতেখারুল ইসলাম গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা দুজনকে গ্রেপ্তার করেছি। তারা হলো বাসটির চালক সিদ্দিক শিকদার ও কন্ডাক্টর কামাল রাঢ়ি। সিদ্দিক আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

তাদের সঙ্গে ইউনুস নামে তুরাগ পরিবহনের আরেক চালক ছিল। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ’

গত ১০ ফেব্রুয়ারি ভোরে সায়েদাবাদের জনপথ মোড়ে একটি বাস থেকে আলম মিয়া (৪৮) ও শফিকুল ইসলাম (৩২) নামের দুই মাছ ব্যবসায়ীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। তাঁরা দুজনই কাপ্তানবাজারের মাছ ব্যবসায়ী। কাপ্তানবাজার থেকে যাত্রাবাড়ী নেওয়ার কথা বলে ফাঁকা বাসে তোলে।


মন্তব্য