kalerkantho


সখীপুরে বসুন্ধরা আই হসপিটালের চক্ষু ক্যাম্প

‘বড়’ ডাক্তারের সেবা পেল শত শত রোগী

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



‘বড়’ ডাক্তারের সেবা পেল শত শত রোগী

টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিনা মূল্যে চোখের চিকিৎসা নিচ্ছেন এক রোগী। ছবি : কালের কণ্ঠ

মঙ্গলবার সকাল ৯টা। বড়চওনা ফুলকুঁড়ি বিদ্যানিকেতন স্কুল মাঠে শামিয়ানার নিচে অপেক্ষা করছেন শত শত বয়োবৃদ্ধ নারী-পুরুষ। ঢাকা থেকে চোখের বড় ডাক্তার আসবেন শুনে চিকিৎসা নিতে সখীপুরসহ আশপাশের কয়েকটি উপজেলার রোগীরা ছুটে এসেছে। সেখানে কথা হলে কয়েকজন বৃদ্ধ চক্ষু রোগী জানান, দীর্ঘদিন ধরে চোখের নানা সমস্যায় ভুগছিলেন তাঁরা। কিন্তু অভাব-অনটনের কারণে চিকিৎসা নিতে না পেরে দুনিয়ার আলো দেখা প্রায় বন্ধ হওয়ার পথে। তাই বড় আশা নিয়ে এখানে জড়ো হয়েছেন ওই সব হতদরিদ্র বয়স্ক চক্ষু রোগী।

মঙ্গলবার টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার বড়চওনায় ‘বসুন্ধরা আই হসপিটাল ও প্রবীণ কল্যাণ কেন্দ্র’ দিনব্যাপী বিনা মূল্যে চক্ষু ক্যাম্পের আয়োজন করে। কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম কামরুল হাসান ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক উপপরিচালক ডা. মোহাম্মদ শামসুল হক প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। প্রবীণ কল্যাণ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা শাহজালাল চৌধুরীর সভাপতিত্বে সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হালিম সরকার, অধ্যাপক খান মোহাম্মদ সেলিম, মুক্তিযোদ্ধা মাজহারুল ইসলাম, আবদুল হাই, বড়চওনা বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আবদুস সাত্তার, আওয়ামী লীগ নেতা আয়নাল হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

দিনব্যাপী চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্পে প্রায় ৫০০ হতদরিদ্র রোগীকে ব্যবস্থাপত্র ও ওষুধ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া ৫০ জন চোখে ছানি পড়া রোগীকে বসুন্ধরা আই হসপিটালে অপারেশনের জন্য নির্বাচন করা হয়। ২৮ মার্চ ওই সব রোগীর চোখের ছানি অপারেশন করা হবে। বসুন্ধরা আই হসপিটালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এম এ খালেক ও মজিবর রহমান চিকিৎসাসেবা দেন।

বসুন্ধরা আই হসপিটালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এম এ খালেক বলেন, ‘দিনব্যাপী চিকিৎসা ক্যাম্পে প্রায় ৫০০ হতদরিদ্র চক্ষু রোগীকে ব্যবস্থাপত্র ও ওষুধ দেওয়া হয়েছে। ৫০ জনকে ঢাকায় নিয়ে অপারেশনের জন্য নির্বাচন করা হয়েছে। বসুন্ধরা আই হসপিটাল মানবিক দায় থেকেই দরিদ্র মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ’

প্রবীণ কল্যাণ কেন্দ্রের সভাপতি মো. শাহজালাল চৌধুরী বলেন, ‘এর আগেও বসুন্ধরা আই হসপিটালের পক্ষ থেকে এমন মহৎ আয়োজন করা হয়েছে। ’


মন্তব্য