kalerkantho


গৃহকর্মী গুমের অভিযোগ

রাজউক প্রকৌশলীকে হাইকোর্টে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



কিশোরী গৃহকর্মীকে গুম করার অভিযোগে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রকৌশলী আসাদুজ্জামানকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৪ এপ্রিল তাঁকে সশরীরে হাজির হয়ে অপহরণের অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

একই সঙ্গে ওই কিশোরীর বাবা আব্দুল আজিজ খানের করা সাধারণ ডায়েরির (জিডি) পরিপ্রেক্ষিতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহীম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল সোমবার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন। অন্তর্বর্তীকালীন এ নির্দেশনার পাশাপাশি রুল জারি করা হয়েছে। রুলে কিশোরী গুমের অভিযোগে আসাদুজ্জামানের বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। চার সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

‘রাজউক প্রকৌশলী আসাদুজ্জামানের কারিশমা! কিশোরী গৃহকর্মীকে তিন মাস গুম করে রাখার অভিযোগ’ শিরোনামে গত ৫ মার্চ একটি জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাহানারা বেগম।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, “আজিদা খাতুন (১২) কলাবাগান থানা এলাকার ‘পান্থছায়া’ বাসা নং-৩০৪, ৩ নং বিল্ডিং (তৃতীয় তলা) পান্থপথের বাসিন্দা প্রকৌশলী আসাদুজ্জামানের বাসায় পরিচারিকার কাজ করত। গত বছর ১৯ নভেম্বর মেয়ের সঙ্গে কথা বলার জন্য তার বাবা গৃহকর্তা আসাদুজ্জামানের মোবাইলে ফোন দিলে, তিনি (আসাদুজ্জামান) জানান, আজিদা ১৬ নভেম্বর পালিয়ে গেছে।

আজিদার বাবা কান্নাজড়িত কণ্ঠে অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি আমার মেয়েকে ফেরত চাইলে আসাদুজ্জামান আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং হুমকি দিয়ে বলেন, এ বিষয়ে কোনো রকম বাড়াবাড়ি করলে, তোর মেয়েকে খুন করে, লাশ গুম করে, উল্টো তোর নামে মামলা দিয়ে জেলে ভরে রাখব। ’


মন্তব্য