kalerkantho


মাগুরায় স্কুল ছাত্রীকে ভারতে পাচার, মাদরাসা শিক্ষক জেলে

মাগুরা প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



মাগুরার শালিখা উপজেলার এক স্কুল ছাত্রীকে ভারতে পাচারের অভিযোগে স্থানীয় একটি মাদরাসা এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত রবিবার বিকেলে ওই শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আবদুল আলিম নামের শিক্ষক শালিখার আড়পাড়া দাখিল মাদরাসায় কর্মরত।

পাচারের শিকার মেয়েটি ভারতের হাওড়ায় একটি আশ্রয়কেন্দ্রে আছে বলে তার বাবা জানিয়েছেন।

শালিখা থানার ওসি রবিউল হোসেন জানান, গত ৪ মার্চ সকালে প্রাইভেট পড়তে আড়পাড়া সদরে শিক্ষক আবদুল আলিমের বাড়িতে যায় ওই ছাত্রী। দুপুর পর্যন্ত সে বাড়ি না ফেরায় পরিবারের সদস্যরা শিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করে। শিক্ষক জানায় মেয়েটি প্রাইভেট পড়ে ফিরে গেছে।

নিখোঁজের পাঁচ দিন পর গত ১০ মার্চ ভারতের হাওড়া জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট অনামিকা দলপতি মেয়েটির বাবাকে মোবাইলে ফোন করে জানান তাকে হাওড়া স্টেশনে পাওয়া গেছে। পরদিন শনিবার মেয়েটির বাবা থানায় অভিযোগ করেন। এরপর পুলিশ শিক্ষক আবদুল আলিমকে গ্রেপ্তার করে। রবিবার তাকে মাগুরা বিচার বিভাগীয় হাকিম আদালতে সোপর্দ করা হয়।

আদালত আলিমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মেয়েটির বাবা জানান, হাওড়ার ম্যাজিস্ট্রেট অনামিকা দলপতি গত ১০ মার্চ মেয়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে তাঁকে কথা বলিয়ে দিয়েছেন। তাঁর মেয়ে জানিয়েছে, ঘটনার দিন প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পর মাদরাসা শিক্ষক আলিম তাকে কৌশলে মাগুরা শহরে নিয়ে যায়। সেখানে একটি ওষুধের দোকানে পানির সঙ্গে কিছু খাওয়ানোর পর সে অচেতন হয়ে পড়ে। জ্ঞান ফিরে সে নিজেকে হাওড়া স্টেশনে দেখতে পায়। এ সময় দুই যুবক তাকে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। সে চিত্কার করলে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। পরে হাওড়া প্রশাসনের মাধ্যমে তাকে একটি আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানো হয়।


মন্তব্য