kalerkantho


রৌমারীর ইউএনওকে ১৩ লাখ টাকা জমা দিতে নির্দেশ

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



কুড়িগ্রামের রৌমারীর ইউএনও হাটবাজার ইজারা শিডিউল বিক্রির সাড়ে ১৩ লাখ টাকা জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে।

গত শনিবার তদন্ত শেষে কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম সেলিম এ নির্দেশ দেন। জানা গেছে, রৌমারী হাটবাজারের শিডিউল বিক্রির শেষ তারিখ ছিল গত ২২ ফেব্রুয়ারি। ২৩ ফেব্রুয়ারি শিডিউল জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ছিল। এতে শুধু রৌমারী হাটবাজারের ৯৯টি শিডিউল বিক্রি হয়। বাক্সে জমা পড়ে মাত্র সাতটি। প্রতিটি শিডিউলের মূল্য ছিল ২০ হাজার ৪০০ টাকা। নিয়ম অনুসারে শিডিউল বিক্রির অর্থ উপজেলা রাজস্ব খাতে জমা করা হয়। কিন্তু ইউএনও ৩৩টি শিডিউল বিক্রি দেখিয়ে পৌনে সাত লাখ টাকা রাজস্ব খাতে জমা দেন। বাকি ৬৬ শিডিউল বিক্রির সাড়ে ১৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেন। এ অভিযোগ তদন্ত করতে রৌমারীতে আসেন কুড়িগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম সেলিম। গত শনিবার তদন্ত কার্যক্রম চলাকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কাগজপত্র দেখে আত্মসাতের প্রমাণ পান।


মন্তব্য