kalerkantho


ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির পঞ্চম সমাবর্তন

বিশ্বমানের মানবসম্পদ হওয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিশ্বমানের মানবসম্পদ

হওয়ার আহ্বান

শিক্ষামন্ত্রীর

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার নবরাত্রি মিলনায়তনে গতকাল ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির সমাবর্তনে মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে পদক বিতরণ করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি : কালের কণ্ঠ

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, ‘সরকারি কিংবা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষার মধ্যে পার্থক্য করি না। সবার জন্য মানসম্মত শিক্ষা ও সুযোগ নিশ্চিত করতে চাই। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করা আমাদের উদ্দেশ্য নয়, এসব বিশ্ববিদ্যালয় ব্যর্থ হতে না দেওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে। কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এখনো আইন অনুসারে চলছে না। আইন মানতে ব্যর্থ হওয়ায় এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ করা এবং এদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যেসব বিশ্ববিদ্যালয় অসৎ উদ্দেশ্যে চলছে এবং আইন-কানুন মানছে না তারা আইনি পথেই বাতিল হবে। চেষ্টা কিংবা সাহায্য-সহযোগিতা করলেও টিকিয়ে রাখা সম্ভব হবে না। ’ মন্ত্রী গতকাল রবিবার সকালে বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির নবরাত্রি মিলনায়তনে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির পঞ্চম সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক আবদুল হামিদের মনোনীত প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করেন। এবারের সমাবর্তনে চার অনুষদের এক হাজার ৯০১ জন শিক্ষার্থীকে সনদ প্রদান করা হয়। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ ফলধারী দুই শিক্ষার্থীকে চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক, তিনজনকে চেয়ারম্যান স্বর্ণপদক ও চারজনকে উপাচার্য স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়েছে।

সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বত্তৃদ্ধতা করেন ঢাকাস্থ কানাডিয়ান রাষ্ট্রদূত বিনো পিয়েরে লারামি। এ ছাড়া বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়্যারম্যান আব্দুল মান্নান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়্যারম্যান আজিজুল ইসলাম, উপাচার্য ড. আব্দুর রব ও উপ-উপাচার্য ড. আবদুল হান্নান।

শিক্ষামন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের প্রতি দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে ওঠার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘দেশের শ্রেষ্ঠ মেধাবী শিক্ষার্থীদের একাংশ আপনারা। আপনাদের আগামী দিনের কার্যক্রমের ওপর নির্ভর করছে দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধি। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রয়োজন দক্ষ মানবসম্পদ। নিজেদের মেধা, শিক্ষা ও দক্ষতা কাজে লাগিয়ে বিশ্বমানের মানবসম্পদে পরিণত হতে হবে। ’

মঞ্জুরি কমিশনের চেয়্যারমান আব্দুল মান্নান তাঁর বক্তব্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের কথা তুলে ধরে বলেন, ‘কোনো বিশ্ববিদ্যালয় মান বজায় রাখতে না পারলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব। গোষ্ঠীস্বার্থে কিছু বিশ্ববিদ্যালয় আইন মানতে ছলচাতুরীর আশ্রয় নিচ্ছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতার অভাব লক্ষণীয়। সঠিক আইনের মধ্যে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়কে চলতে হবে। যারা আইন মানতে ব্যর্থ হবে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ীই ব্যবস্থা নিতে হবে। ’


মন্তব্য