kalerkantho


‘বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে বড় অবদান’ শীর্ষক বক্তৃতা

‘জাতীয়তাবাদ ও গণতন্ত্রের আন্দোলনকে সমান্তরাল করে তুলেছিলেন তিনি’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



‘জাতীয়তাবাদ ও গণতন্ত্রের আন্দোলনকে সমান্তরাল করে তুলেছিলেন তিনি’

বাংলা একাডেমির শামসুর রাহমান মিলনায়তনে গতকাল ‘বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে বড় অবদান’ শীর্ষক স্বাধীনতা দিবস বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী ও লেখক অধ্যাপক বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর বড় অবদান মানুষকে ঔপনিবেশিক পূর্ব পাকিস্তানের বিপরীতে সোনার বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখানো। দ্বিতীয়ত, জাতীয়তাবাদের আন্দোলনকে গণতন্ত্রের আন্দোলনের সমান্তরাল করে তোলা।

সেই স্বপ্নে বিভোর বাঙালি পাকিস্তান রাষ্ট্রকে প্রতিরোধ করেছে। বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে বড় অবদান তিনি মধ্যবিত্তসহ সাধারণ মানুষের মাঝে সেই বঞ্চনার বোধ সঞ্চারিত করতে পেরেছিলেন। এ বোধ থেকে তিনি, তাঁর সহযোগীরা প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন। ’

গতকাল শনিবার বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনী আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে বড় অবদান’ শীর্ষক স্বাধীনতা দিবস বক্তৃতায় বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর এ কথা বলেন। বাংলা একাডেমির শামসুর রাহমান মিলনায়তনে সম্মিলনীর সভাপতি অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের সভাপতিত্বে আলোচক ছিলেন একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির। স্বাগত বক্তব্য দেন সম্মিলনীর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাহবুবর রহমান।

অধ্যাপক বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও তাঁর রাজনৈতিক এবং সহযোগী রাজনৈতিক দলগুলো এভাবে বাংলাদেশকে উপনিবেশ থেকে সোনার বাংলার দিকে অগ্রসর হয়েছে। সামরিক শাসনের মতাদর্শ প্রত্যাখ্যান করে সিভিল শাসন প্রতিষ্ঠার দিকে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক স্ট্র্যাটিজিকে ব্যবহার করেছে। ’

শাহরিয়ার কবির বলেন, ‘একাত্তরের মার্চ মাসে অনেক কিছু ঘটেছে।

সবচেয়ে বড় ঘটনা পৃথিবীর বৃহত্তম গণহত্যা ২৫ মার্চ। দিনটিকে জাতীয় গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের আন্দোলন করেছি। সংসদে বিতর্কের পর তা পাস হতে যাচ্ছে। আশা করি এর পর থেকে গণহত্যা নিয়ে বিভ্রান্তির সুযোগ থাকবে না। ’

মুনতাসীর মামুন বলেন, ‘মার্চে পৃথিবীর বড় অসহযোগ আন্দোলন সংঘটিত হয়েছে। ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু অবিস্মরণীয় ভাষণ দিয়েছেন। ২ মার্চ স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। ২৫ মার্চ গণহত্যা শুরু হয়েছে। ২৬ মার্চে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করে গ্রেপ্তার হন। অতএব মার্চ মাস আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ’


মন্তব্য