kalerkantho


চট্টগ্রামে বই পড়ে পুরস্কার পেল ছয় হাজার শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ‘বছরজুড়ে বই পড়া’ কর্মসূচিতে এবার অংশ নিয়েছে চট্টগ্রাম নগরের ৮১টি বিদ্যালয়ের ১৭ হাজার শিক্ষার্থী। এর মধ্যে পুরস্কার জিতেছে ছয় হাজার ৩১৩ জন। তাদের মধ্যে চার হাজার ২৮৬ জনকে গতকাল শুক্রবার পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। আজ শনিবার বাকি দুই হাজার ২৭ জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দেওয়া হবে।

এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় নগরের মিউনিসিপ্যাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে দুই দিনের উৎসব শুরু হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ ও গ্রামীণফোনের হেড অব চট্টগ্রাম সার্কেল শাওন আজাদ।

অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, ‘তোমাদের প্রত্যেকের ভেতর আলাউদ্দিনের চেরাগের দৈত্যের মতো একজন অসীম ক্ষমতাসম্পন্ন মানুষ বন্দি অবস্থায় আছে। সেই দৈত্যকে জাগানোই হলো আসল কাজ, যা বই পড়ে করা যায়। তোমরা যদি সেই কাজটা করতে পারো, তবে বাংলাদেশ একদিন সত্যিই শ্রেষ্ঠ দেশ হিসেবে পরিচিত হবে। ’

মেয়র নাছির উদ্দিন বলেন, ‘ছাত্রছাত্রীদের শুধু গতানুগতিক শিক্ষা গ্রহণ করলেই হবে না। সার্টিফিকেটধারী শিক্ষিত না হয়ে বই পড়ার মাধ্যমে মানবিক মানুষ হতে হবে।

এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন, অতিরিক্ত সচিব ড. মো. মাহামুদ-উল-হক, চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় কমিশনার বেগম সারওয়ার জাহান, প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক আনিসুল হক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক ড. গোলাম ফারুক, মিউনিসিপ্যাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রেজিয়া আখতার প্রমুখ।

সাংবাদিক আবুল মোমেন বলেন, ‘মানুষকে মানুষ হওয়ার জন্য সংগ্রাম করতে হয়। কিন্তু অন্য প্রাণীদের তা করতে হয় না। প্রকৃত মানুষ হতে হলে শিক্ষাকে ধারণ করতে হয়। বই থেকে আসে শিক্ষা ও আলো। ’

বই পড়ায় শিক্ষার্থীদের উৎসাহী করতে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের নেওয়া এই সৃজনশীল কর্মসূচিতে সহযোগিতা দিচ্ছে গ্রামীণফোন।

 


মন্তব্য